বাংলাদেশ

কলসিন্দুরের ৮ ফুটবলারের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে পুরস্কার

কলসিন্দুর গ্রামের সাফজয়ী ৮ ফুটবলারের প্রত্যেকের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে পুরস্কার দিয়েছে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন।
ফুটবলার সানজিদার মা-বাবার হাতে পুরস্কারের অর্থ তুলে দেওয়া হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

কলসিন্দুর গ্রামের সাফজয়ী ৮ ফুটবলারের প্রত্যেকের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে পুরস্কার দিয়েছে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন।

আজ বুধবার বিকেলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) পুলক কান্তি চক্রবর্তী ও অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মো. আনোয়ার হোসেন কলসিন্দুর গ্রামে যান।

প্রথমে তারা ফুটবলার সানজিদার বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবার হাতে পুরস্কারের অর্থ তুলে দেন।

এরপর কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে বাকি ৭ ফুটবলারের পরিবারের সদস্যদের হাতে পুরস্কারের অর্থ তুলে দেওয়া হয়।

ধোবাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফৌজিয়া নাজনীন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে অদম্য মেয়েদের পরিবারকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি উপস্থিত সবাইকে মিষ্টিমুখ করানো হয়েছে।'

মেয়েদের বিশাল সাফল্যে ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী কলসিন্দুর গ্রামের আনন্দের ঢেউ আশপাশের গ্রামগুলোতেও ছড়িয়ে পড়েছে। চলছে বিশাল সংবর্ধনার আয়োজন।

সাফ ফাইনালে গোল করা শামসুন্নাহারের (জুনিয়র) বাড়ি। ছবি: সংগৃহীত

নারী সাফ চ্যাম্পিয়ন দলের ৮ জনই গারো পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত এই কলসিন্দুর গ্রামের। তারা হলেন, সানজিদা আক্তার, মারিয়া মান্ডা, তহুরা আক্তার, শামসুন্নাহার (সিনিয়র), শামসুন্নাহার (জুনিয়র), শিউলি আজিম, সাজেদা আক্তার ও মার্জিয়া আক্তার। এই ৮ জন ছাড়াও আরও অনেক কিশোরী ফুটবলার উঠে এসেছে এ গ্রাম থেকে।

গত প্রায় এক দশক ধরে দেশের নারী ফুটবল মাতাচ্ছে অজপাড়া গাঁ কলসিন্দুর থেকে উঠে আসা একদল কিশোরী ফুটবলার। তাদের পায়ের জাদুতে দেশের ধুঁকতে থাকা ফুটবলে ফিরেছে আশার আলো। দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে তারা, লাল সবুজের পতাকাকে বিশ্বের বুকে তুলে ধরেছে। একইসঙ্গে পরিচিতি এনে দিয়েছে ছায়া সুনিবিড় কলসিন্দুর গ্রামকে।

 

Comments