বাংলাদেশ

নরসিংদীতে বিএনপির কার্যালয়ে পুলিশের অভিযান, আটক ১০

নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুরে জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে দলীয় বৈঠক চলাকালে ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুরে জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে দলীয় বৈঠক চলাকালে ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ১টি রিভলবার, কিছু ককটেলসদৃশ বস্তু জব্দ করে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কে এম শহিদুল ইসলাম সোহাগ দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, সন্ধ্যায় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক খায়রুল কবির খোকন এর নেতৃত্বে বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ঘরোয়াভাবে সাংগঠনিক বৈঠক চলছিল। এতে যুগ্ম আহবায়ক গোলাম কবির কামাল, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক উদ্দিন ভূঁইয়া, নরসিংদী শহর বিএনপি সদস্য মো. সোহেল রানাসহ প্রায় শতাধিক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক খায়রুল কবির খোকন কার্যালয় থেকে চলে পর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কে এম শহিদুল ইসলাম সোহাগ এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ।

এ সময় তল্লাশি চালিয়ে কার্যালয়ের ছাদ থেকে মশাল ব্যবহৃত ৪০- ৫০টি লাঠি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া কার্যালয়ের সামনে বস্তায় ভর্তি কটেল সদৃশ্য বস্তু জব্দ করে পুলিশ। 

লাঠি ও ককটেল সদৃশ্য বস্তু উদ্ধারের ঘটনায় ১০ জন কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

এসময় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলাম সোহেল কার্যালয় থেকে বের হয়ে নিজ গাড়িতে উঠার সময় তার কাছ থেকে ১টি রিভলবারসহ তাকে আটক করা হয়।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, 'সন্ধ্যায় জেলার যুগ্ম আহ্বায়কদের নিয়ে একটি ঘরোয়া সভা ছিল। এসময় পুলিশ হঠাৎ করে আমাদের কার্যালয় ঘিরে রাখে। বিভাগীয় সমাবেশ বানচাল করা ও নেতাকর্মীদের মনোবল ভেঙে দিতে পুলিশ নাটকীয় অভিযান পরিচালনা করেছে। এসময় ১০-১২ জন দলীয় নেতাকর্মীকে আটক করে নিয়ে গেছে পুলিশ।'

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কে এম শহিদুল ইসলাম সোহাগ বলেন, 'পুলিশের কাছে নাশকতার গোপন তথ্য ছিল। সেই তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে ১টি রিভলবার, ককটেল তৈরির সরঞ্জাম ও মশাল জব্দ করা হয়েছে।'

অভিযান অব্যাহত রয়েছে, অভিযান শেষ হওয়ার পর আটকের সংখ্যা ও বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারবো বলে জানান তিনি।

Comments