হজযাত্রীদের হয়রানি করলে কঠোর শাস্তি: প্রধানমন্ত্রী

হজযাত্রীদের সঙ্গে কোনো এজেন্সি প্রতারণা বা হয়রানি করলে সে এজেন্সির বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী দিনগুলোতেও আল্লাহর ঘরের মেহমানদের যারা হয়রানি করবে তাদেরকে কঠোর শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।
ছবি: ইউএনবি

হজযাত্রীদের সঙ্গে কোনো এজেন্সি প্রতারণা বা হয়রানি করলে সে এজেন্সির বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী দিনগুলোতেও আল্লাহর ঘরের মেহমানদের যারা হয়রানি করবে তাদেরকে কঠোর শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত জাতীয় পর্যায়ে হজ ও ওমরা ব্যবস্থা বিষয়ক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশকে জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত করে পবিত্র ইসলামের শান্তিময় মহিমাকে জাগ্রত রাখার জন্য আমরা জঙ্গিবাদ দমনে জিরো টলারেন্স কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আলেম ওলামাদের সম্পৃক্ত করে প্রত্যেক এলাকায় কমিটি করে দেওয়া হয়েছে যাতে কারো ছেলে-মেয়ে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত না হয় সেই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে ৫৬৪টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করে দিচ্ছি। ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও গবেষণা কেন্দ্র থাকবে। ইসলাম ধর্মের মূল কথা মানুষ যেন ভালোভাবে জানতে পারে।

আমরা আশা করি, আমাদের দেশ থেকে যারা হজে যাবেন তারা যেন সুষ্ঠু-সুন্দরভাবে যেতে পারেন এবং হজ ব্যবস্থাপনায় সৌদি আরব বাংলাদেশের যে ভূয়সী প্রশংসা করেছে সেটা যেন অব্যাহত থাকে। যারাই যাবেন, যে দেশেই যাবেন, সেই দেশের নিয়ম-কানুন, আইন মেনে চলতে হবে। সৌদি আরব যাওয়ার আগে সবাইকে সে দেশের আইন-নিয়ম জানতে হবে এবং সেগুলো মানতে হবে। আমরা যে ৫৬৪টি মসজিদ করে দিয়েছি সেখানে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকবে, মানুষ আরও জানতে পারবে। যারা প্রবাসে কাজ নিয়ে যাবেন তাদেরও সেখানে ধারণা দেওয়া যাবে, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

Comments

The Daily Star  | English

Procession at DU today to protest BCL's attack: quota protest leader

Less than an hour after quota protesters were attacked and chased out of Dhaka University campus by BCL activists, they said they will bring out a procession on campus later today to protest the attack

35m ago