দুর্নীতি-অনিয়মের সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধান বিচারপতি

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আবারও বিচার বিভাগের দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, এ ধরনের অপকর্মের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকলে তাকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।
প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। ছবি: সংগৃহীত

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আবারও বিচার বিভাগের দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, এ ধরনের অপকর্মের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকলে তাকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।

আজ মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে জেলা বিচারক ও সমমানের বিচারবিভাগীয় কর্মকর্তাদের বার্ষিক সভায় ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি বলেন, বিচারপতিদের অবশ্যই সততা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করতে হবে। যাতে মানুষ কোনো রকম হয়রানি ছাড়াই ন্যূনতম খরচে স্বল্প সময়ের মধ্যে ন্যায়বিচার পেতে পারেন।

রুদ্ধদ্বার বৈঠকে প্রায় ৩০০ জেলা জজ ও সমমানের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। আপিল বিভাগের বিচারক, আইন সচিব মো. গোলাম সারোয়ার এবং সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. গোলাম রাব্বানী প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। সংবাদকর্মীদের সভার কার্যক্রম কাভার করার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

বৈঠক সূত্র জানায়, প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী জেলা জজদের নির্দেশ দিয়েছেন, অধস্তন আদালতের কোনো বিচারক যদি কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকেন এবং কোনো আইনজীবী যদি আদালতের নিয়ম ভঙ্গ করেন, তাহলে তাকে প্রতিবেদন দিতে হবে।

সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, ১২ জন জেলা জজ ওই অনুষ্ঠানে কথা বলেছেন।

এর আগে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সতর্ক করেছিলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় ও সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, 'দুর্নীতি একটি ক্যান্সার। আমি দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো আপোস করব না।'  

Comments

The Daily Star  | English

Fewer but fiercer since the 90s

Though the number of cyclones in general has come down in Bangladesh over the years, the intensity of the cyclones has increased, meaning the number of super cyclones has gone up, posing a greater threat to people in coastal areas, a recent study found.

24m ago