বিস্ফোরণে নাশকতার প্রচেষ্টা দেখিনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সম্প্রতি দেশে যে কয়টি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে, সেগুলোর কারণ সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা এ পর্যন্ত যে রিপোর্ট দিয়েছে, সে রিপোর্ট অনুযায়ী এখন পর্যন্ত নাশকতার কোনো প্রচেষ্টা আমরা দেখিনি। কোনো ধরনের নাশকতা পরিকল্পনার কোনো সংবাদও আমাদের কাছে আসেনি।
মুন্সিগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি দেশে যে কয়টি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে, সেগুলোর কারণ সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা এ পর্যন্ত যে রিপোর্ট দিয়েছে, সে রিপোর্ট অনুযায়ী এখন পর্যন্ত নাশকতার কোনো প্রচেষ্টা আমরা দেখিনি। কোনো ধরনের নাশকতা পরিকল্পনার কোনো সংবাদও আমাদের কাছে আসেনি।

তিনি বলেন, 'আমাদের বোম ডিসপোজাল ইউনিট, কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট, সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞ, পুলিশ বাহিনীর বিশেষজ্ঞ যেগুলো জঙ্গি উত্থানের সময় আমরা গঠন করেছিলাম, তারা কেউ এখন পর্যন্ত বিস্ফোরণে বোমার সন্ধান পায়নি।'

আজ শনিবার বিকেলে মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার একটি রিসোর্টে মুন্সিগঞ্জ-বিক্রমপুর সমিতির ৭৫ বছর পূর্তি উৎসবে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'এখন পর্যন্ত আমাদের অনুসন্ধান চলছে। আমরা চূড়ান্ত কিছু বলতে পারছি না। আমাদের ধারনা, এখানে গ্যাস জমে এই বিস্ফোরণ হয়েছে। সিদ্দিকবাজারে যেটা ঘটেছে সেখানেও একই ঘটনা ঘটেছে। চূড়ান্ত প্রতিবেদন পেলে আমরা পরিষ্কার করে বলতে পারব। বিস্ফোরণে বোমার কোনো সন্ধান আমরা পাইনি এবং কোনো তথ্যও আমরা পাইনি।'

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, 'নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী ২০২৩ সালের শেষের দিকে অথবা ২০২৪ সালের প্রথম দিকে আমাদের সংসদ নির্বাচন হবে। আওয়ামী লীগ কোনো চক্রান্তে, কোনো ষড়যন্ত্রে বিশ্বাস করে না। জনগণের ভোট ও সমর্থন নিয়ে আওয়ামী লীগ চলে। কোনো ধরনের চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রে আমরা ভয় পাই না। এসব মোকাবিলা করেই আমরা চলছি, প্রধানমন্ত্রী চলছেন।'

২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের জনসভায় হামলার ঘটনা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'হামলায় বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী নিহত হয়েছিলেন। আহত হন শত শত। শেখ হাসিনাকে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে ১৯ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আল্লাহ তাকে রক্ষা করেছিলেন বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য, বাংলাদেশকে আলোকিত করার জন্য, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার জন্য।'

তিনি বলেন, 'রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনের সময় রাজনৈতিক প্রোপাগান্ডা করবে, এটাই স্বাভাবিক। তার দলের ইশতেহার প্রচার করে জনগণকে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করবে। কিন্তু কেউ যদি বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করে, ভাঙচুর করার চেষ্টা করে, ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করে তাহলে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী রয়েছে, তারা ব্যবস্থা নেবে।'

এসময় মুন্সিগঞ্জ-বিক্রমপুর সমিতির সভাপতি ডা. মনিরুজ্জামান ভূঁইয়াসহ আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান সিনহা ও মুন্সিগঞ্জের পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান আল মামুন।

Comments