বাংলাদেশ

রানা প্লাজা ট্র্যাজেডি নিয়ে দৃক গ্যালারিতে শেষ হলো আলোকচিত্র প্রদর্শনী

রানা প্লাজা ট্র্যাজেডি নিয়ে ঢাকার পান্থপথে দৃক গ্যালারিতে শেষ হলো আলোকচিত্র প্রদর্শনী। বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছিল।

রানা প্লাজা ট্র্যাজেডি নিয়ে ঢাকার পান্থপথে দৃক গ্যালারিতে শেষ হলো আলোকচিত্র প্রদর্শনী। বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছিল।

মোট ২০ জন শিল্পীর আলোকচিত্র, কাটুর্ন, গ্রাফিতি, সাউন্ড, ভিডিও এবং গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির আর্কাইভাল কাজ প্রদর্শনীতে দেখানো হয়।

'রানা প্লাজা হত্যাকাণ্ড ১০ বছর ও তারপর' শীর্ষক এই প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, যুগ্ম সম্পাদক দীপক রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রবীর সাহা ও গণসংহতি আন্দোলনের রাজনীতি পরিষদের সদস্য মনিরুদ্দীন পাপ্পু।

গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির মাসব্যাপী কর্মসূচি শুরু হয় গত ২৪ মার্চ রানা প্লাজার সামনে প্রতিবাদ ও প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে। কর্মসূচি শেষ হবে ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজার সামনে প্রতিবাদ জানানোর মাধ্যমে।

প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, রানা প্লাজা ধসে হাজারো শ্রমিক প্রাণ ও স্বপ্ন হত্যার ১০ বছর সারা দুনিয়ার কারখানার ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। এত বছরেও সোহেল রানাসহ দোষীদের শাস্তি হয়নি। সোহেল রানাসহ তাদের অনেকের জামিন হয়েছে, পরে আবার জামিন স্থগিত হয়েছে। দোষী মালিকসহ অন্যদের শাস্তি হয়নি। তারা আরও বলেন, দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত না হলে এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি বন্ধ করা যাবে না। শ্রমিকদের মানুষ হিসেবে না দেখে যন্ত্র বা মুনাফার যন্ত্র ভাবা বন্ধ হবে না। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় শ্রমিকদের মজুরি ২৫ হাজার টাকা নির্ধারণের দাবি জানান তারা।

Comments