বাংলাদেশ

ঢাকার প্রবেশমুখে র‍্যাব-পুলিশের তল্লাশি জোরদার

আমিনবাজারে পুলিশের চেকপোস্ট ঘুরে দেখা যায়, বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতিতে ঢাকাগামী বিভিন্ন যানবাহন থামিয়ে যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তাদের সঙ্গে থাকা ব্যাগপত্র তল্লাশী করছে পুলিশ।
বাস-মোটরসাইকেল থামিয়ে তল্লাশি করছে পুলিশ। ছবি: স্টার

আগামীকাল ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে রাজনৈতিক দলগুলোর সমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকার প্রবেশমুখ আমিনবাজার ও আশুলিয়া চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশী জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে তল্লাশী কার্যক্রম শুরু করে পুলিশ।

র‌্যাব-৪ সদস্যরা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় চেকপোস্ট পরিচালনা করছে। এ ছাড়া আমিনবাজার এলাকায় পুলিশের পাশাপাশি কিছু সংখ্যক সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের পরিবহনে তল্লাশী করতে দেখা গেছে।

আজ সকালে আমিনবাজারে পরিচালিত পুলিশের চেকপোস্ট ঘুরে দেখা যায়, বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতিতে ঢাকাগামী বিভিন্ন যানবাহন থামিয়ে যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তাদের সঙ্গে থাকা ব্যাগপত্র তল্লাশী করছে পুলিশ। এ ছাড়া ঢাকাগামী দূরপাল্লার বিভিন্ন যাত্রীবাহী বাস, গণপরিবহন, প্রাইভেট কার, হাইয়েস মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেলের প্রতি পুলিশের বিশেষ নজর লক্ষ্য করা গেছে।

পুলিশ এ সময় যাত্রীদের কাছে তাদের গন্তব্য, কোথা থেকে আসছেন, পেশা কী; এসব প্রশ্ন করতে দেখা গেছে। কিছু ক্ষেত্রে যাত্রীদের পরিচয় নিশ্চিতে তাদের পরিচয়পত্র চেক করতে দেখা গেছে।

সকালে মহাসড়কে যানবাহনের চাপ কম থাকলেও বেলা ১০টার দিকে যানবাহনের চাপ বাড়ায় চেকপোস্টে যানবাহন থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ ও মালামাল তল্লাশি করায় যানবাহন চলাচলে কিছুটা ধীরগতি দেখা যায়।

জানতে চাইলে চেকপোস্টে উপস্থিত ঢাকা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাভার সার্কেল) দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আগামীকাল রাজধানীতে দুটি রাজনৈতিক দলের সমাবেশ রয়েছে, তাই কেউ যেন ঢাকায় প্রবেশ করে কোনো ধরনের নাশকতা কিংবা বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে না পারে, সেটি নিশ্চিত করতেই পুলিশের এই চেকপোস্ট কার্যক্রম চলছে। চেকপোস্টে এখন পর্যন্ত কাউকেই আটক করা হয়নি।'

সাভার ও আশুলিয়া থানায় গ্রেপ্তার ৭ বিএনপি নেতাকর্মী

এদিকে ২৮ তারিখে বিএনপি সমাবেশকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে পুলিশ সাভার ও আশুলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে তল্লাশি অভিযান ও নেতাকর্মীদের আটক করা শুরু করেছে বলে  অভিযোগ করেছেন সাভার থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা।

জানতে চাইলে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সমাবেশকে কেন্দ্র করে নয়, পুরোনো মামলায় বিএনপির ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।' 

এদিকে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম কামরুজ্জামান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'পুরোনো মামলায় এক যুবদলের নেতাসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।'

 

Comments