বাংলাদেশ

‘মার্কিন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা দাবি করা ব্যক্তিকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করব’

‘শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে আমাদের কোনো বাধা নেই। আগের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিগুলোতে আমাদের কোনো বাধা ছিল না, কালকেও আমাদের বাধা ছিল না। শনিবারের সমাবেশের সহিংসতার দায় বিএনপির নেতারা এড়াতে পারেন না’
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। স্টার ফাইল ছবি

বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের উপদেষ্টা দাবি করা ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশের পূর্বে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'একজন আমেরিকান সিটিজেন বিএনপি অফিসে নিজেকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবে পরিচয় দিয়ে অনেক কথাই বলেছেন। আমরা তার পরিচয় জেনেছি। তিনি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন আমেরিকান নাগরিক। মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, তিনি তাদের কোনো উপদেষ্টা নয়। আমরা তার সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করব।'

'শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে আমাদের কোনো বাধা নেই। আগের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিগুলোতে আমাদের কোনো বাধা ছিল না, কালকেও আমাদের বাধা ছিল না। শনিবারের সমাবেশের সহিংসতার দায় বিএনপির নেতারা এড়াতে পারেন না', বলেন তিনি।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, 'বিএনপি নামে একটা দল সরকারে অনেকদিন ছিল। তারা ২০১৪-১৫ সালে যে অগ্নিসন্ত্রাস ও জঙ্গির উত্থান ঘটিয়েছিল, সেজন্য দেশের জনগণ তাদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। তারা নির্বাচনে আসতে পারবে না জেনেই নানা ধরনের কৌশল ও ষড়যন্ত্র করছে। বিদেশিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।'

'তারা বলেছিল, ২৮ অক্টোবর একটি শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করবে, সারা বাংলাদেশ থেকে সমর্থকদের জড়ো করেছিল। তারা বলেছিল, ফকিরাপুল ও নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকবে। তারা তা না করে প্রধান বিচারপতির বাসভবন পর্যন্ত চলে আসে। বিচারপতির বাসভবনের গেট ভেঙে জোর করে তারা ঢুকে যায়, বিভিন্ন জায়গায় অগ্নিসংযোগ করে', বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'নিবৃত্ত করতে গেলে পুলিশকে তারা পিটিয়ে হত্যা করেছে। হত্যা সুনিশ্চিত করতে চাপাতি দিয়ে মাথায় কোপ দিয়েছে। ভিডিও ফুটেজে এগুলো আমরা স্পষ্ট দেখতে পেয়েছি। ছাত্রদলের এক নেতা নির্দেশ দিচ্ছেন এবং নিজে পেটাচ্ছেন।'

'আরও একজন পুলিশ সদস্য সংকটাপন্ন অবস্থায় আছেন। একশর মতো পুলিশ ও আনসার সদস্য বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন', যোগ করেন তিনি।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, 'এসব ঘটনা ঘটিয়ে তারা হরতালের ডাক দিয়েছে। হরতালের শুরুতেই ডেমরায় একটি বাস হেলপারসহ পুড়িয়ে দিয়েছে। নীলফামারীতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর চড়াও হয়ে একজনকে হত্যা ও কয়েকজনকে আহত করেছে। সারা বাংলাদেশে তারা একটা অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে। আমরা ধৈর্যের সঙ্গে আছি, আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী ধৈর্যের সঙ্গে সবকিছু মোকাবিলা করছে।'

'যারা এ ধরনের অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করছেন, তাদের আমরা অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি করব', বলেন তিনি। 

Comments