৬৯ দিন কারাভোগের পর মুক্তি পেলেন শ্রমিক নেতা বাবুল

গত ১০ জানুয়ারি জামিন পেলেও, আইনি জটিলতায় এতদিন তিনি মুক্তি পাননি।
কারামুক্তির পর জেলগেটে গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপতি তাসলিমা আখ্তা‌রের সঙ্গে বাবুল আক্তার। ছবি: সংগৃহীত

কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সেক্রেটারি বাবুল হোসেন।

৬৯ দিন কারাভোগের পর আজ মঙ্গলবার রাত ৮টায় গাজীপুর জেলা কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপতি তাসলিমা আখ্তা‌র দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ মামলায় গত ১০ জানুয়ারি জামিন পেলেও, আইনি জটিলতায় তিনি মুক্তি পাননি।

তাসলিমা আখ্তা‌র বলেন, 'গত বুধবার বাবুলের কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। আমরা সেদিন জেলগেটে তার অপেক্ষায় ছিলাম।'

বুধবার গাজীপুরের জেলার মো. তারিকুল ইসলাম বলেছিলেন, 'বাবুল হোসেনের জামিন হলেও আইনি জটিলতায় এখনই মুক্তি পাচ্ছেন না। কাগজপত্র ঠিক হলে তার মুক্তি পেতে বাধা নেই।'

গত ১৪ নভেম্বর রাতে গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানা এলাকার চান্দনা চৌরাস্তা থেকে বাবুলকে আটক করা হয়। পরে তাকে গাড়ি পোড়ানো মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে নেওয়া হলে আদালত রিমান্ডের আদেশ দেন। 

২১ নভেম্বর দুটি নিম্ন আদালত মামলায় তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। এরপর এ বছরের ১০ জানুয়ারি হাইকোর্ট থেকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পান তিনি।

বাবুলের আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া তখন বলেছিলেন, 'বাবুলের বিরুদ্ধে কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না থাকায় হাইকোর্ট জামিন দিয়েছেন। মামলা দায়েরের ১৫ দিন পর গাজীপুর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।'

 

Comments