রাজনীতি

নারায়ণগঞ্জে আ. লীগের হামলায় ছাত্রদল সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ আহত ৫

ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ফেরার পথে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের গাড়িবহরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
হামলায় আহত ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে এবং ভাঙচুরের পর ছাত্রদল নেতাদের বহনকৃত গাড়ি। ছবি: সংগৃহীত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ফেরার পথে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের গাড়িবহরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ বুধবার বিকেল আনুমানিক ৪টার দিকে গোপালদী পৌরসভীর রামচন্দ্রী এলাকায় গাউছিয়া-বাঞ্ছারামপুর সড়কে এ হামলা হয় বলে অভিযোগ করেন ছাত্রদল নেতারা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে পুলিশের গুলিতে নিহত ছাত্রদল নেতা নয়নের বাড়িতে যান বিএনপি ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। বিকেলে ফেরার পথে আড়াইহাজারে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হামলার শিকার হন ছাত্রদল নেতারা।'

হামলায় কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ ও সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলসহ ৫ জন আহত হয়েছেন। এসময় ছাত্রদল নেতাদের বহনকারী গাড়িটিও ভাঙচুর করা হয় বলে জানান এই বিএনপি নেতা।

আড়াইহাজার পৌরসভা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ফেরার পথে গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রী এলাকায় গাউছিয়া-বাঞ্ছারামপুর সড়কে হামলার শিকার হন কেন্দ্রীয় নেতারা। গোপালদী পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল আহমেদ আপন ও সাধারণ সম্পাদক সুজয় সাহার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী হকিস্টিক ও লাঠিসোটা হাতে হামলায় অংশ নেন। তারা ছাত্রদল নেতাদের বহনকারী গাড়ি ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেন।'

হামলায় আহত ছাত্রদল নেতারা স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ঢাকার দিকে রওনা দেন বলেও জানান তিনি।

এদিকে, হামলায় ছাত্রলীগের সম্পৃক্ততার অভিযোগ অস্বীকার করে আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'রামচন্দ্রী এলাকায় এক রিকশাচালকের সঙ্গে ছাত্রদলের গাড়িবহরের ঝামেলা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন ও রিকশাচালকরা গাড়িতে ইট-পাটকেল মেরে ভাঙচুর করেন। আড়াইহাজার বাজারেও স্থানীয় রিকশাচালকরা ফের তাদের গাড়ি বহরে হামলা চালান। পরে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদককে দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে নিজের টাকায় প্রাইভেট কার ভাড়া করে ঢাকা যাওয়ার ব্যবস্থা করি।'

এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক ডেইলি স্টারকে বলেন, 'হামলার কোনো খবর পাইনি। আমরা এ বিষয়ে খোঁজখবর নিচ্ছি। তবে এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে কেউ হামলার অভিযোগ করেনি।'

Comments