চাঁদাবাজি-টেন্ডারবাজি-মাস্তানি বন্ধ করুন: যুবলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে পরশ

যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, এখনই সময় নিজেদের পরিবর্তনের। চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে, টেন্ডারবাজি বন্ধ করতে হবে, মাস্তানি-রংবাজি বন্ধ করতে হবে। মানুষকে নিপীড়ন করা যাবে না। আমি প্রকাশ্যে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যুবলীগের পদ পেতে হলে কোনো আর্থিক অনুদানের প্রয়োজন হবে না। তাই আপনার এই পবিত্র পদবীকে চাঁদাবাজির টেন্ডার বা অবৈধ উপার্জনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা উচিত নয়।
বাগেরহাট জেলা যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। ছবি: স্টার

যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, এখনই সময় নিজেদের পরিবর্তনের। চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, মাস্তানি, রংবাজি বন্ধ করতে হবে। মানুষকে নিপীড়ন করা যাবে না।

আজ বুধবার বিকেলে বাগেরহাট শহরের শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়ামে বাগেরহাট জেলা যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের বক্তব্যে শেখ ফজলে শামস পরশ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যুবলীগের পদ পেতে হলে কোনো আর্থিক অনুদানের প্রয়োজন হবে না। তাই আপনার এই পবিত্র পদবীকে চাঁদাবাজি, টেন্ডার বা অবৈধ উপার্জনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা উচিত নয়।

কোথাও অন্যায় দেখলে যুবলীগের নেতা-কর্মীদের প্রতিবাদ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নিজের কথা ভাবার আগে সংগঠনের কথা ভাবতে হবে। মনে রাখতে হবে ব্যক্তির চেয়ে দল বড়; দলের চেয়ে দেশ বড়।

এর আগে বিকেল ৩টায় জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে বাগেরহাটে জেলা যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়। সম্মেলনে যোগ দিতে সকাল থেকেই জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে যুবলীগের নেতা-কর্মীরা স্টেডিয়ামে আসেন। সম্মেলন শুরুর আগেই নেতাকর্মীদের ভিড়ে শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়াম পূর্ণ হয়ে যায়। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে সন্ধ্যায় যুবলীগের সম্মেলন শেষ হয়।

বাগেরহাট জেলা যুবলীগের আহবায়ক সরদার নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন। প্রধান বক্তা ছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মইনুল হোসেন খান নিখিল।

Comments