শেখ হাসিনা নির্ঘুম রাত কাটান মানুষের জন্য: কাদের

ওবায়দুল কাদের বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেছেন, এখানে একটা দল আছে। সারা বাংলাদেশে আছে। তারা আওয়ামী লীগকে ভয় পায়।
ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, শেখ হাসিনা,
মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার কোম্পানিগঞ্জের বসুরহাট বাজারের বঙ্গবন্ধু চত্বরে এক অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের। ছবি: আনোয়ারুল হায়দার

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেছেন, এখানে একটা দল আছে। সারা বাংলাদেশে আছে। তারা আওয়ামী লীগকে ভয় পায়। তাদের মধ্যে নির্বাচনে হেরে যাওয়ার ভয় কাজ করে।

তিনি বলেন, 'এ কারণে ভয়ে ভয়ে পথ হারিয়ে তারা পদযাত্রা করে বেড়াচ্ছে। আন্দোলনে জনগণ না থাকলে সেটা আন্দোলন নয়। আন্দোলনে মানুষ থাকতে হবে। তাদের আন্দোলনে নেতাকর্মীরা আছে। তারা সাধারণ জনগণকে নামাতে পারেনি। কারণ শেখ হাসিনার উন্নয়ন-অর্জন সারা দুনিয়ায় সমাদৃত।'

আজ মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার কোম্পানিগঞ্জের বসুরহাট বাজারের বঙ্গবন্ধু চত্বরে ২৩টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন ও শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রধান অনুষ্ঠানে এসব বলেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, 'শেখ হাসিনা নির্ঘুম রাত কাটান মানুষের জন্য। বেশি টাকায় আমদানি করে আমরা কম টাকায় বিক্রি করছি। জিনিসপত্রের দাম বেড়ে গেছে। আমাদের কোনো দোষ নেই। আমরা মূল্য দিচ্ছি। দোষ বড় বড় শক্তি, তারাই আজকে সারা বিশ্বকে সংকটে ফেলেছে। শেখ হাসিনা সংকট সামাল দিচ্ছে। কয়েক দিন আগে আইএমএফ বলেছে বাংলাদেশ ৩৫তম অর্থনৈতিক দেশ। বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াবে। বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। পাকিস্তানে ২ সপ্তাহের আমদানির ডলার নেই। পাকিস্তান তলানিতে নেমেছে। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হবে না। বাংলাদেশ দুঃসময়ে শ্রীলঙ্কাসহ কয়েকটি রাষ্ট্রকে ঋণ দিয়েছে।'

দলীয় নেতাকর্মীদের ওবায়দুল কাদের বলেন, 'যারা কর্মীদের থেকে টাকা দিয়ে চাকরি দেয় তারা ভালো মানুষ না। নেতা হয়ে গরিবের থেকে টাকা নিয়ে চাকরি দিলে ওই টাকা তার পরিশোধ করতে ১০ বছর লেগে যাবে। এই কথাটা ভেবে দেখবেন সবাই। আমার ও সরকারের দুর্নাম হয় এমন কাজ করবেন না। মানুষের মনের ভাষা, চোখের ভাষা বুঝতে হবে। বুঝতে না পারলে ভুল করবেন। নির্বাচনে তার প্রমাণ পাবেন।'

সেতুমন্ত্রী বলেন, 'আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে নির্বাচনে তাদের হারানোর কোনো শক্তি বাংলাদেশে নেই। বাংলাদেশ, গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও মুক্তিযুদ্ধের শক্তিকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে আবার ক্ষমতার মঞ্চে দেখতে চায় জনগণ।' 

কবিরহাট জিরো পয়েন্ট এলাকায় ওবায়দুল কাদের বলেন, 'ভালোবাসা দিবসে এত ফুল? এর মধ্যে কী সবই ভালবাসা না কি অন্য কিছু? 
এই ফুলের মাঝে স্বার্থের গন্ধও আছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমাকে দলের সাধারণ সম্পাদক করেছেন। আমার এলাকার মানুষও আমাকে সম্মানিত করেছেন। এজন্য আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ। প্রধানমন্ত্রী আমাকে যে আমানত দিয়েছেন তা আমি জীবন দিয়ে রক্ষা করব।'

মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, 'তার পছন্দ পাকিস্তান। আজকে দেশে নারীরা উচ্চশিক্ষা নিয়ে দেশ-বিদেশে গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন। দেশে নারীরা মন্ত্রী এমপি, ডিসি এসপি সচিব মেজর জেনারেল স্পিকারের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করছেন। বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশ তালেবান হবে। নারীরা আর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবেন না। নারীদের কোনো মূল্য থাকবে না।'

তিনি আগুন সন্ত্রাস প্রতিহত করতে নেতাকর্মীদের আহবান জানান।

কবিরহাটের পথসভার স্টেজে নেতাকর্মীদের ভিড় দেখে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে তিনি বলেন, 'ঢাবি ছাত্রলীগের অনুষ্ঠানের স্টেজ ভেঙে পড়েছিল। আমাদের যদি এত নেতা হয় তাহলেতো কর্মী উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাবে। আমাদের নেতার দরকার নেই।'

Comments