রাজনীতি

সংবিধান পরিবর্তন করে আপস করতে হবে—এমন বিপদে পড়িনি: কাদের

কোনো পরিস্থিতিতেই সংবিধানের প্রশ্নে ছাড় দেওয়া হবে না জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধান পরিবর্তন করে কারও সঙ্গে আপস করতে হবে—এ রকম বিপদে আমরা পড়িনি।
ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের | ছবি: টেলিভিশন থেকে নেওয়া

কোনো পরিস্থিতিতেই সংবিধানের প্রশ্নে ছাড় দেওয়া হবে না জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধান পরিবর্তন করে কারও সঙ্গে আপস করতে হবে—এ রকম বিপদে আমরা পড়িনি।

আজ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আলাপকালে তিনি এই কথা বলেন।

আপনারা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন চাচ্ছেন, বিএনপিকে নির্বাচনে আসার আহ্বান জানাচ্ছেন। সাধারণত নির্বাচনের আগে কিছু আলোচনা হয়, এবার বিএনপিকে নির্বাচনে আনার বিষয়ে আপনাদের বা অন্য কোনো মাধ্যমে ব্যাক ডোরে কোনো আলোচনা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'আমরা যা করি প্রকাশ্যে করি, ব্যাক ডোরে আলোচনার কোনো সুযোগ নেই। গণতন্ত্র ব্যাক ডোরে আলোচনা করার জায়গা না। গণতন্ত্র প্রকাশ্যে আলোচনা। আলোচনা হলে প্রকাশ্যেই হবে।
আমার দরকার হলে আমিই ফখরুল সাহেবকে ফোন করব যে, আসেন আলোচনা আছে। তার যদি দরকার হয় তিনি আমাকে বলতে পারেন।'

তেমন সম্ভাবনা আছে কি না জানতে চাইলে কাদের বলেন, 'সেটা তো আমি এখনো দেখছি না।'

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, বিএনপি না এলে নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে না। এই বিষয়টি রাজনৈতিকভাবে সমাধান করতে হবে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও কালো মেঘ ঘনীভূত হচ্ছে। আপনি বহুবার বলেছেন রাজনৈতিক মেঘ কেটে যাবে। এই মেঘ কীভাবে কাটবে সেই চিন্তা আপনাদের আছে না—এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, 'নির্বাচনকে সামনে রেখে আমাদের দেশে এ ধরনের সংকট নতুন নয়। এটা বারবার হয়েছে, বারবার কালো মেঘ ঘনীভূত হয়েছে আকাশে আবার এই মেঘ একটা পর্যায়ে কেটেও গেছে। কী হবে, সেটা এই মুহূর্তে আগাম বলে দেওয়া সম্ভব না। এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না কখন কী হবে। আমি আশাবাদী মানুষ। আমি মনে করি, এই সংকট কেটে যাবে।'

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আমি একটা কথা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, দুনিয়ার বিভিন্ন দেশে গণতন্ত্র আছে, নির্বাচন আছে, সরকার আছে, বিরোধী দল আছে। কিন্তু বাংলাদেশে এমন কিছু ঘটেনি যার জন্য সংবিধান পরিবর্তন করে কোনো প্রকার বিকল্প প্রস্তাব কারো অনুকূলে সমর্থন করার কোনো সুযোগ নেই। আমরা কোনো পরিস্থিতিতেই সংবিধানের প্রশ্নে ছাড় দেবো না। সংবিধানের মধ্যেই সমাধান আছে। এর বাইরে কোনো প্রস্তাব গ্রহণ করতে আমরা প্রস্তুত নই। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে যেভাবে নির্বাচন হয় ঠিক সেভাবে বাংলাদেশে হবে।'

তিনি আরও বলেন, 'সংবিধানের মধ্যে যে সমাধান আছে সেটা নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে হবে। সংবিধান পরিবর্তন করে কারও সঙ্গে আপস করতে হবে—এ রকম বিপদে আমরা পড়িনি। এ রকম চিন্তাও আমরা করি না। এই সংবিধান বাংলাদেশ জন্মের চেতনার সংবিধান। এই সংবিধান নিয়ে আর কাটাকাটির কোনো সুযোগ নেই।'

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, 'তাদের অবস্থান ক্ষমতায় যাওয়া নয়। তাদের অবস্থান শেখ হাসিনাকে হটানো ক্ষমতা থেকে। তারা ক্ষমতায় যাবে এ নিয়ে তাদের মাথা ব্যথা নেই।'

নির্বাচনের আগে বিএনপির সঙ্গে সংলাপের সম্ভাবনা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'আমরা কাউকে আলোচনার জন্য ডাকছি না।'

Comments

The Daily Star  | English

Chennai win fifth IPL title in Dhoni's likely swansong

Chennai Super Kings equalled Mumbai Indians' record of five Indian Premier League (IPL) titles after Mahendra Singh Dhoni's side triumphed in a last-ball thriller, beating champions Gujarat Titans by five wickets in Monday's rain-marred final in Ahmedabad.

2h ago