খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সুযোগ নেই আর আপনি আমেরিকা ঘুরে বেড়াচ্ছেন: রিজভী

'আইনমন্ত্রী বলেছেন সিদ্ধান্ত দেবেন আর প্রধানমন্ত্রী ভয়েস অব আমেরিকায় বলছেন দণ্ডিত আসামির বিদেশে চিকিৎসার কোনো নিয়ম নেই। একই সরকারের দুই জনের দুই রকম বক্তব্য।'
শনিবার বিকেলে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় ঘাগটিয়া চালা ওয়েল ফেয়ার ক্লাব মাঠে বক্তব্য দেন রুহুল কবির রিজভী। ছবি: স্টার

বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার সর্বোচ্চ চিকিৎসা হয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন, বিদেশে উন্নত চিকিৎসা না হলে নেত্রীকে বাঁচানো যাবে না।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, এত অসুস্থ খালেদা জিয়ার চিকিৎসা করার কোনো সুযোগ নেই। আর আপনি (শেখ হাসিনা) গোটা আমেরিকা ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর অনুমতি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, 'এই আবেদন শুধু দলের নয়। এই আবেদন শুধু বিএনপি নেতৃবৃন্দের নয়। এই আবেদন দেশের কোটি কোটি মানুষের। এই আবেদন দেশের শ্রেষ্ঠ চিকিৎসকদের।'

আজ শনিবার বিকেলে গাজীপুরের কাপাসিয়া শাখা বিএনপির উদ্যোগে উপজেলার ঘাগটিয়া চালা ওয়েল ফেয়ার ক্লাব মাঠে সাবেক মন্ত্রী আ স ম হান্নান শাহের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

খালেদা জিয়ার চোখ, লিভার, কিডনি ও হৃদরোগে আক্রান্ত। সেই সঙ্গে তিনি উচ্চ ডায়াবেটিসে ভুগছেন বলেও বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। খালেদা জিয়াকে স্থায়ীভাবে মুক্তি ও চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দিতে গত ২৫ সেপ্টেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন তার ভাই শামীম ইস্কান্দার। এ ব্যাপারে আগামীকাল মতামত জানাবে আইন মন্ত্রণালয়।

এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, 'আইনমন্ত্রী বলেছেন সিদ্ধান্ত দেবেন আর প্রধানমন্ত্রী ভয়েস অব আমেরিকায় বলছেন দণ্ডিত আসামির বিদেশে চিকিৎসার কোনো নিয়ম নেই। একই সরকারের দুই জনের দুই রকম বক্তব্য।'

শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, 'আপনি কারাগারে ছিলেন। আপনি কারাগারে থেকে চিকিৎসার জন্য আমেরিকায় যাননি? আপনি গেছেন। শুধু তাই নয়, আপনার মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, তার তো সাজা হয়েছিল। সাজা থাকা অবস্থায় সিংগাপুরে কি করে চিকিৎসার জন্য গেলেন? আ স ম আব্দুর রব জাতীয় নেতা, তার সাজা হয়েছিল। সাজা থাকা অবস্থায় তাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছিলেন। আপনি বেগম খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে মারবেন। এটা আপনার অশুভ চিন্তা।'

ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলেন, 'আপনি ৩৬ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন। বিএনপিকে সঠিক পথে আসতে বলেছেন, নাহলে খবর আছে, হাত পা ভেঙে দেওয়া হবে। আমি বলি, আপনি কার হাত পা ভাঙবেন, জনগণ আমাদের সঙ্গে। পুলিশ দিয়ে বাধা দেন, র‌্যাব দিয়ে বাধা দেন। আপনারা যা বলবেন, তার উল্টোটা হবে। উল্টাপাল্টা কথার জন্য জনগণ এখন ওবায়দুল কাদেরের নাম দিয়েছে আন্তর্জাতিক গোপাল ভাঁড়। আপনার দলের সব চোর। একবার একতরফা নির্বাচন করেছেন, আরেকটা করেছেন রাতের বেলায়। এটা সবাই জানে।'

বিএনপি জেলা সভাপতি ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কামরুজ্জামান রতন, সহ-শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ূন কবির খান, সহ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী ছাইয়েদুল আলম বাবুল, জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল হান্নান শাহ, ডা. মাজহারুল আলম, কালিয়াকৈর পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান, গাজীপুর মহানগর বিএনপির সভাপতি শওকত হোসেন সরকার প্রমুখ।

Comments