ইসরায়েলকে চুক্তির শর্ত বাস্তবায়নে বাধ্য করা যুক্তরাষ্ট্রের দায়িত্ব: হামাস

আবু জুহরি বলেন, ‘মার্কিন প্রশাসনের সামনে এখন অগ্নিপরীক্ষা। অঙ্গীকার অনুযায়ী ইসরায়েলকে অবিলম্বে যুদ্ধের অবসান করানো এবং নিরাপত্তা কাউন্সিলের চুক্তির অন্যান্য শর্তগুলো বাস্তবায়নে বাধ্য করা এখন তাদের দায়িত্ব।’
জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব নিয়ে ভোট চলছে। ছবি: রয়টার্স
জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব নিয়ে ভোট চলছে। ছবি: রয়টার্স

গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির একটি খসড়া প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিল। এই খসড়া চুক্তি মেনে নিয়েছে হামাস। হামাস এখন চুক্তির শর্তগুলো নিয়ে দরকষাকষিতে আগ্রহী।

আজ মঙ্গলবার এই তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স।

হামাস কর্মকর্তা সামি আবু জুহরি রয়টার্সকে আজ বলেন, ইসরায়েল যেন চুক্তির শর্তগুলো মেনে চলে তা নিশ্চিতের দায়িত্ব ওয়াশিংটনের।

জ্যেষ্ঠ্য হামাস কর্মকর্তা সামি আবু জুহরি। ছবি: এক্স থেকে সংগৃহীত
জ্যেষ্ঠ্য হামাস কর্মকর্তা সামি আবু জুহরি। ছবি: এক্স থেকে সংগৃহীত

তিনি বলেন, হামাস জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের খসড়া চুক্তি অনুযায়ী গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি, ইসরায়েলি সেনা প্রত্যাহার ও জিম্মি মুক্তির বিনিময়ে ইসরায়েলের কাছে আটক ফিলিস্তিনিদের মুক্তির বিষয়গুলো মেনে নিয়েছে।

আবু জুহরি বলেন, 'মার্কিন প্রশাসনের সামনে এখন অগ্নিপরীক্ষা। অঙ্গীকার অনুযায়ী ইসরায়েলকে অবিলম্বে যুদ্ধের অবসান করানো এবং নিরাপত্তা কাউন্সিলের চুক্তির অন্যান্য শর্তগুলো বাস্তবায়নে বাধ্য করা এখন তাদের দায়িত্ব।'

নিরাপত্তা কাউন্সিলে জাতিসংঘের উত্থাপন করা খসড়া যুদ্ধবিরতির চুক্তি অনুমোদন পেলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মন্তব্য করেন, 'হামাসের এখন প্রমাণ করার সময় যে তারা আসলেই যুদ্ধবিরতি চায়'।

 

Comments