স্যামসনের সেঞ্চুরিতে সিরিজ জিতল ভারত

বৃহস্পতিবার পার্লে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডেতে স্বাগতিকদের ৭৮ রানে হারিয়েছে ভারত।
Sanju Samson

ওপেনারদের ব্যর্থতার দিনে দাঁড়িয়ে গেলেন সঞ্জু স্যামসন, দলকে টেনে নিয়ে করলেন ওয়ানডেতে প্রথম সেঞ্চুরি। তাকে সঙ্গ দেন তিলক বর্মা। শেষ দিকে দলকে তিনশোর কাছে নিতে ক্যামিও ইনিংস খেলেন রিঙ্কু সিং আর ওয়াসিংটন সুন্দর, পরে বল হাতেও অবদান রাখেন সুন্দর। প্রোটিয়াদের ইনিংসে বারবার হানা দিয়ে পেসার আর্শদিপ সিংও রাখেন বড় ভূমিকা। সম্মিলিত প্রয়াসে সিরিজ জিতে নেয় ভারত।

বৃহস্পতিবার পার্লে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডেতে স্বাগতিকদের ৭৮ রানে হারিয়েছে ভারত। আগে ব্যাট করে ২৯৬ রানের পুঁজি পায় লোকেশ রাহুলের দল। জবাবে ২১৮ রানে থেমে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। এতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল ভারত।

দলের জয়ে সবচেয়ে বড় অবদান সঞ্জুর। ১১৪ বলে ১০৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তিলক করেন ৭৭ বলে ৫২ রান। শেষ দিকে রিঙ্কু ২৭ বলে ৩৮ আর সুন্দর ৯ বলে খেলেন ১৪ রানের ইনিংস।

২৯৭ রান তাড়ায় নেমে রেজা হেনড্রিকস-টনি দে জর্জি মিলে ভালো শুরু এনেছিলেন। নবম ওভারে রেজাকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন আর্শদিপ।  রাসি ফন ডার ডুসেন আকসার প্যাটেলের বলে বোল্ড হলে পর পর ধাক্কা খায় স্বাগতিকরা। অধিনায়ক এইডেন মার্কাম থিতু হয়ে থামান দৌড়। সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগানো দে জর্জিকে এলবিডব্লিউ বানান আর্শদিপ।

আবেশ খানের বলে হেনরিক ক্লাসেন ফেরেন সাই সুদর্শনের দারুণ ক্যাচে। দলের চাপে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি ডেভিড মিলারও। পরে আর ম্যাচ জেতানোর মতন কেউই ছিলেন না তাদের।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামা ভারতকে ঝড় শুরু এনে দিতে চেষ্টা চালান রজত পাতিদার। ১৬ বলে ২২ করে পুরো চাহিদা মেটাতে পারেননি তিনি। আরেক ওপেনার সুদর্শন থামেন ১০ রান করে। অধিনায়ক রাহুল ফেরেন থিতু হয়ে।

সঞ্জু ধরেন হাল। তিলকের সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে পান ১১৬ রানের জুটি। ফিফটি করে তিলক থামলেও সেঞ্চুরি তুলে দলের ভিত মজবুত করে বিদায় নেন সঞ্জু। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরি পেতে ৬ চারের সঙ্গে ৩ ছয় মারেন তিনি।

সঞ্জুর এনে দেওয়া ভিতের উপর শেষটায় রিঙ্কু, সুন্দররা আগ্রাসী ব্যাটিং করলে জেতার পুঁজি পেয়ে যায় সফরকারীরা।

Comments