ক্রিকেট

দুই রাত না ঘুমিয়ে এমন ঝড়ো ইনিংস খেলেন নাজিবুল্লাহ

শাহাদাত হোসেন দিপুর সঙ্গে তার  ৬৮ অবিচ্ছিন্ন ১২১ রানের জুটিতে সিলেটের ১৭৭ পেরিয়ে ৭ উইকেটে জিতে যায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। রান তাড়ায় এমন আগ্রাসী ইনিংস খেলায় অনুমিতভাবেই ম্যাচ সেরা হয়েছেন তিনি। পরে পুরস্কার তিনি এসে জানান না ঘুমিয়ে খেলতে নামার কথা।
Najibullah Zadran
ছবি: ফিরোজ আহমেদ/স্টার

বুধবার রাতে ভারতের বিপক্ষে বেঙ্গালুরুতে টানটান উত্তেজনার ইতিহাসের প্রথম ডাবল সুপার ওভারের ম্যাচটি খেলেছিলেন নাজিবুল্ললাহ জাদরান। আফগানিস্তানের এই ব্যাটার জম্পেশ সেই ম্যাচ খেলেই রওয়ানা দেন বাংলাদেশের পথে।

ট্রানজিটের অপেক্ষা শেষে বাংলাদেশে আসায় পরের রাতেও ঠিকমতো ঘুম হয়নি তার। শুক্রবার ভ্রমণ ক্লান্তির মাঝেই খেলতে নামেন বিপিএলের প্রথম দিনে। তার ব্যাটিংয়ে অবশ্য ভ্রমণ ক্লান্তির কোন রেশ মিলল না। সিলেট স্ট্রাইকার্সকে গুঁড়িয়ে জিততে জাদরান করলেন ৩০ বলে ৬১ রান।

শাহাদাত হোসেন দিপুর সঙ্গে তার  ৬৮ অবিচ্ছিন্ন ১২১ রানের জুটিতে সিলেটের ১৭৭ পেরিয়ে ৭ উইকেটে জিতে যায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। রান তাড়ায় এমন আগ্রাসী ইনিংস খেলায় অনুমিতভাবেই ম্যাচ সেরা হয়েছেন তিনি। পরে পুরস্কার তিনি এসে জানান না ঘুমিয়ে খেলতে নামার কথা, 'আমি দুই রাত ঘুমাইনি। ভারতের বিপক্ষে বেঙ্গালুরুতে খেলে এলাম। এখানে চিন্তা ছিলো ফিট থেকে সেরাটা দেওয়া। শেষ পর্যন্তে ব্যাটে-বলে সংযোগ করাতে পেরেছি, রান পেয়েছি। দলকেও জেতাতে পেরে খুশি।'

নাজিবুল্লাহ ইনিংস অবশ্য ঠিক নিখুঁত নয়। একাধিকবার সুযোগ দিয়েছিলেন তিনি, কিন্তু সিলেটের ফিল্ডাররা তা ধরে রাখতে পারেননি। ১৮ রানে তার সহজ ক্যাচ ছেড়ে দেন তানজিম সাকিব, ২৫ রানে নাজমুল হোসেন শান্ত অনেকটা ছুটে ডাইভ দিয়ে হাতে লাগিয়েও জমাতে পারেননি। ৩৪ রানে নাজিবুল্লাহ কঠিন ক্যাচ ছাড়েন রিচার্ড এনগারাভা।

৩৪ রানের পর আর কোন সুযোগ দেননি বাঁহাতি ব্যাটার। দ্রুত রান উঠিয়ে ম্যাচ শেষ করে দেন তিনি। ৩০ বলে দুশোর বেশি স্ট্রাইকরেটে ৬১ রান করতে ৩ চারের সঙ্গে তিনি মেরেছেন বিশাল পাঁচ ছক্কা।

Comments