দেখে নিন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলগুলোর স্কোয়াড

প্রতিটি দল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত স্কোয়াডে রাখতে পারে ১৫ জন করে ক্রিকেটারকে।
ছবি: এএফপি

২০২৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যৌথভাবে আয়োজন করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশ সময় অনুসারে আগামী ২ জুন মাঠে গড়াবে উদ্বোধনী ম্যাচ, ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৯ জুন। চার গ্রুপে ভাগ হয়ে মোট ২০টি দল লড়াই করবে ক্রিকেটের ক্ষুদ্রতম সংস্করণের নবম আসরের শিরোপার জন্য।

প্রতিটি দল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত স্কোয়াডে রাখতে পারে ১৫ জন করে ক্রিকেটারকে। গত ১ মে ছিল আইসিসিকে খেলোয়াড়দের নাম জমা দিতে বোর্ডগুলোকে বেঁধে দেওয়া সময়ের শেষদিন। আর ২৫ মে পর্যন্ত কোনো কারণ দেখানো ছাড়াই সরাসরি পরিবর্তন আনা গিয়েছিল দলে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলগুলোর স্কোয়াড:

গ্রুপ এ: ভারত, পাকিস্তান, আয়ারল্যান্ড, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র

ভারতের স্কোয়াড:
রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), হার্দিক পান্ডিয়া (সহ-অধিনায়ক), যশস্বী জয়সওয়াল, বিরাট কোহলি, সূর্যকুমার যাদব, রিশভ পান্ত, সঞ্জু স্যামসন, শিবাম দুবে, রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চাহাল, আর্শদীপ সিং, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ সিরাজ।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
শুবমান গিল, রিঙ্কু সিং, খলিল আহমেদ ও আবেশ খান।

পাকিস্তানের স্কোয়াড:
বাবর আজম (অধিনায়ক), আবরার আহমেদ, আজম খান, ফখর জামান, ইফতিখার আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, আব্বাস আফ্রিদি, মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ আমির, ইরফান খান, নাসিম শাহ, সাইম আইয়ুব, শাদাব খান, শাহিন আফ্রিদি, উসামা মির, উসমান খান, জামান খান।

কানাডার স্কোয়াড:
সাদ বিন জাফর (অধিনায়ক), অ্যারন জনসন, ডিলন হেইলিগার, দিলপ্রিত বাজওয়া, হার্শ ঠাকার, জেরেমি গর্ডন, জুনায়েদ সিদ্দিকি, কলিম সানা, কানওয়ারপাল তাথগুর, নবনিত ঢালিওয়াল, নিকোলাস কারটন, পরগত সিং, রবিন্দরপাল সিং, রাইয়ানখান পাঠান ও শ্রেয়াস মোভা।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
আম্মার খালিদ, তাজিন্দর সিং, আদিত্য বরধরাজন, পারভিন কুমার ও যতিন্দর মাথারু।

যুক্তরাষ্ট্রের স্কোয়াড:
মোনাঙ্ক প্যাটেল (অধিনায়ক), অ্যারন জোন্স (সহ-অধিনায়ক), আন্দ্রিয়েস গাউস, কোরি অ্যান্ডারসন, আলি খান, হারমিত সিং, জেসি সিং, মিলিন্দ কুমার, নিসর্গ প্যাটেল, নিতিশ কুমার, নশতুশ কেনজিগে, সৌরভ নেত্রভালকর, শ্যাডলি ফন শ্যালকউইক, স্টিভেন টেইলর ও শায়ান জাহাঙ্গীর।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
গজানন্দ সিং, হুয়ানয় ড্রাইসডেল ও ইয়াসির মোহাম্মদ।

আয়ারল্যান্ডের স্কোয়াড:
পল স্টার্লিং (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, রস অ্যাডায়ার, অ্যান্ড্রু ব্যালবার্নি, কার্টিস ক্যাম্ফার, গ্যারেথ ডেলানি, জর্জ ডকরেল, গ্রাহাম হিউম, জশ লিটল, ব্যারি ম্যাককার্থি, নিল রক, হ্যারি টেক্টর, লরকান টাকার, বেন হোয়াইট ও ক্রেইগ ইয়াং।

গ্রুপ বি: ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, নামিবিয়া, স্কটল্যান্ড, ওমান

ইংল্যান্ডের স্কোয়াড:
জস বাটলার (অধিনায়ক), মঈন আলি, জফ্রা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো, হ্যারি ব্রুক, স্যাম কারান, বেন ডাকেট, টম হার্টলি, উইল জ্যাকস, ক্রিস জর্ডান, লিয়াম লিভিংস্টোন, আদিল রশিদ, ফিল সল্ট, রিস টপলি ও মার্ক উড।

অস্ট্রেলিয়ার স্কোয়াড:
মিচেল মার্শ (অধিনায়ক), অ্যাস্টন অ্যাগার, প্যাট কামিন্স, টিম ডেভিড, ন্যাথান এলিস, ক্যামেরন গ্রিন, জশ হ্যাজেলউড, ট্রাভিস হেড, জশ ইংলিস, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, ম্যাথু ওয়েড, ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যাডাম জাম্পা।

নামিবিয়ার স্কোয়াড:
গেরহার্ড এরাসমাস (অধিনায়ক), জেন গ্রিন, মাইকেল ফন লিনগেন, ডিলান লিচার, রুবেন ট্রাম্পেলম্যান, জ্যাক ব্র্যাসেল, বেন শিকঙ্গো, টানগেনি লুনগামেনি, নিকো ডেভিন, জেজে স্মিট, ইয়ান ফ্রাইলিঙ্ক, জেপি কোটজে, ডেভিড ভিসা, বাঁর্নার্ড শুলজ, মালান ক্রুগার, পিডি ব্লিগনট।

স্কটল্যান্ডের স্কোয়াড:
রিচি বেরিংটন (অধিনায়ক), ম্যাথু ক্রস, ব্র্যাড কারি, ক্রিস গ্রিভস, অলি হ্যারিস, জ্যাক জারভিস, মাইকেল জোনস, মাইকেল লিস্ক, ব্র্যান্ডন ম্যাকমুলেন, জর্জ মানসি, সাফিয়ান শরিফ, ক্রিস সোল, চার্লি টিয়ার, মার্ক ওয়াট ও ব্র্যাড হোয়েল।

ওমানের স্কোয়াড:
আকিব ইলিয়াস (অধিনায়ক), জিশান মাকসুদ, কাশ্যপ প্রজাপতি, প্রতিক আথাভেল, আয়ান খান, শোয়েব খান, মোহাম্মাদ নাদিম, খালিদ কাইল, নাসিম খুশি, মেহরান খান, বিলাল খান, রফিকউল্লাহ, কলিমউল্লাহ, ফায়াজ বাট ও শাকিল আহমেদ।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
জতিন্দর সিং, সামায় শ্রিবাস্তব, সুফিয়ান মেহমুদ ও জয় ওডেড্রা।

গ্রুপ সি: ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি, উগান্ডা

ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোয়াড:
রভম্যান পাওয়েল (অধিনায়ক), আলজারি জোসেফ, জনসন চার্লস, রোস্টন চেজ, শিমরন হেটমায়ার, শামার জোসেফ, ব্র্যান্ডন কিং, নিকোলাস পুরান, শেই হোপ, আন্দ্রে রাসেল, রোমারিও শেফার্ড, ওবেড ম্যাককয়, আকিল হোসেন, গুডাকেশ মোটি ও শেরফেন রাদারফোর্ড।

আফগানিস্তানের স্কোয়াড:
রশিদ খান (অধিনায়ক), রহমানউল্লাহ গুরবাজ, ইব্রাহিম জাদরান, আজমতউল্লাহ ওমরজাই, করিম জানাত, নাজিবউল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ ইশাক, মোহাম্মদ নবি, গুলবদিন নাইব, নাঙ্গিয়াল খারোতি, নুর আহমেদ, নাভিন উল হক, ফজলহক ফারুকি, ফরিদ মালিক ও মুজিব উর রহমান।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
হজরতউল্লাহ জাজাই, সেদিক অটল ও সালিম সাফি।

নিউজিল্যান্ডের স্কোয়াড:
কেইন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), ফিন অ্যালেন, ট্রেন্ট বোল্ট, মাইকেল ব্রেসওয়েল, মার্ক চাপম্যান, ডেভন কনওয়ে, লকি ফার্গুসেন, ম্যাট হেনরি, ড্যারেল মিচেল, জিমি নিশাম, গ্লেন ফিলিপস, রাচিন রবীন্দ্র, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি ও টিম সাউদি।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
বেন সিয়ার্স।

পাপুয়া নিউগিনির স্কোয়াড:
আসাদ ভালা (অধিনায়ক), চার্লস আমিনি, আলেই নাও, চ্যাড সোপার, হিলা ভারে, হিরি হিরি, জ্যাক গার্ডনার, জন কারিকো, কাবুয়া মোরেয়া, কিপ্লিং ডরিগা, লেগা সিয়াকা, নরম্যান ভানুয়া, সেমো কামেয়া, সেসে বাউ ও টনি উরা।

উগান্ডার স্কোয়াড:
ব্রায়ান মাসাবা (অধিনায়ক), সাইমন সেসাজি, রজার মুকাসা, কসমস কাইউটা, দিনেশ নাকরানি, ফ্রেড আচেলাম, কেনেথ ওয়াইসওয়া, আলপেশ রামজানি, ফ্র্যাঙ্ক সুবুগা, হেনরি সেনিয়োন্ডো, বিলাল হাসান, রবিনসন ওবুইয়া, রিয়াজাত আলি শাহ, জুমা মিয়াইজি ও রোনাক প্যাটেল।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
ইনোসেন্ট এমওয়েবেজ ও রোনাল্ড লুটায়া।

গ্রুপ ডি: দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, নেদারল্যান্ডস, নেপাল

বাংলাদেশের স্কোয়াড:
নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), তাসকিন আহমেদ, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, তানজিদ হাসান তামিম, সাকিব আল হাসান, তাওহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলি অনিক, রিশাদ হোসেন, তানভীর ইসলাম, শেখ মেহেদী হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তানজিম হাসান সাকিব।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
আফিফ হোসেন ও হাসান মাহমুদ।

দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোয়াড:
এইডেন মার্করাম (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক, রিজা হেন্ড্রিকস, হেইনরিখ ক্লাসেন, ডেভিড মিলার, ট্রিস্টান স্টাবস, রায়ান রিকেলটন, আনরিখ নরকিয়া, কাগিসো রাবাদা, জেরাল্ড কোয়েটজি, ওটনিয়েল বার্টম্যান, মার্কো ইয়ানসেন, কেশব মহারাজ, তাবরাইজ শামসি ও বিয়র্ন ফরচুইন।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
লুঙ্গি এনগিডি ও নান্দ্রে বার্গার।

শ্রীলঙ্কার স্কোয়াড:
ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (অধিনায়ক), চারিথ আসালাঙ্কা, কুসল মেন্ডিস, পাথুম নিসাঙ্কা, কামিন্দু মেন্ডিস, সাদিরা সামারাবিক্রমা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, দাসুন শানাকা, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, মাহিশ থিকশানা, দুনিথ ওয়েলালাগে, দুশমন্থা চামিরা, মাথিশা পাথিরানা, নুয়ান থুশারা ও দিলশান মাদুশঙ্কা।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
আসিথা ফার্নান্দো, বিজয়াকান্থ বিয়াসকান্থ, ভানুকা রাজাপাকসে ও জানিথ লিয়ানাগে।

নেদারল্যান্ডসের স্কোয়াড:
স্কট এডওয়ার্ডস (অধিনায়ক), আরিয়ান দত্ত, বাস ডি লিডি, ড্যানিয়েল ডরাম, ফ্রেড ক্লাসেন, লোগান ফন বিক, ম্যাক্স ও'ডাওড, মাইকেল লেভিট, পল ফন মিকেরেন, সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট, তেজা নিদামানুরু, টিম প্রিঙ্গল, বিক্রম সিং, ভিভিয়ান কিংমা, ওয়েসলি বারেসি।
রিজার্ভ খেলোয়াড়:
কাইল ক্লেইন।

নেপালের স্কোয়াড:
রোহিত পাউডেল (অধিনায়ক), আসিফ শেখ, অনিল কুমার সাহ, কুশল ভুর্টেল, কুশল মাল্লা, দীপেন্দ্র সিং আইরি, ললিত রাজবংশী, করণ কেসি, গুলশান ঝা, সোমপাল কামি, প্রতিস জিসি, সন্দীপ জোরা, অবিনাশ বোহারা, সাগর ধাকাল ও কমল সিং আইরি।

Comments