জনাব লেভানগোলস্কি, শিগগিরই মিউনিখে দেখা হচ্ছে: মুলার

তারকা স্ট্রাইকার রবার্ত লেভানদভস্কি আছেন একটি নতুন অভিজ্ঞতার স্বাদ নেওয়ার সামনে। গতবার বায়ার্নের হয়ে মাঠ দাপালেও এবার তিনি খেলবেন বার্সার জার্সিতে।
ছবি: এএফপি

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের মৌসুমে ফের দেখা হচ্ছে বায়ার্ন মিউনিখ ও বার্সেলোনার। গত মৌসুমেও একই গ্রুপে ছিল ইউরোপের ক্লাব ফুটবলের দুই পরাশক্তি। তবে তারকা স্ট্রাইকার রবার্ত লেভানদভস্কি আছেন একটি নতুন অভিজ্ঞতার স্বাদ নেওয়ার সামনে। গতবার বায়ার্নের হয়ে মাঠ দাপালেও এবার তিনি খেলবেন বার্সার জার্সিতে। তার মুখোমুখি হতে মুখিয়ে থাকার কথা জানিয়েছেন বন্ধু ও বায়ার্নের ফরোয়ার্ড থমাস মুলার।

বৃহস্পতিবার তুরস্কের ইস্তানবুলে অনুষ্ঠিত হয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ড্র। 'সি' গ্রুপে পড়েছে জার্মান বুন্দেসলিগার শিরোপাধারী বায়ার্ন ও স্প্যানিশ লা লিগার ক্লাব বার্সেলোনা। ইতালিয়ান সিরি আর জায়ান্ট ইন্টার মিলানও থাকায় এটিকে 'গ্রুপ অব ডেথ' বা মৃত্যুকূপের তকমা দেওয়া হচ্ছে। অন্য ক্লাবটি চেক প্রজাতন্ত্রের শীর্ষ লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভিক্টোরিয়া প্লাজেন।

হতাশা জাগিয়ে গতবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল বার্সা। তাদেরকে পেছনে ফেলে নক-আউটের টিকিট পেয়েছিল বায়ার্ন ও পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকা। বায়ার্নের সঙ্গে দুই দেখাতেই ৩-০ গোলের বড় ব্যবধানে হেরেছিল তারা। প্রথম দেখায় ক্যাম্প ন্যুতে জোড়া গোল করেছিলেন পোলিশ স্ট্রাইকার লেভানদভস্কি। তিনি এবার খেলবেন বার্সেলোনার হয়ে। অনেক নাটকীয়তার পর চলমান গ্রীষ্মকালীন দলবদলে ৫০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে তাকে দলে টেনেছে দলটি।

লম্বা সময় ধরে গোলের বন্যা বইয়ে দেওয়া লেভানদভস্কিকে মজা করে 'লেভানগোলস্কি' ডেকে থাকেন বিশ্বকাপজয়ী জার্মান তারকা মুলার। গতবার মুলার দুই দেখাতেই বার্সার জালে বল পাঠিয়েছিলেন। এবারও কাতালানদের প্রতিপক্ষ হিসেবে পাওয়ায় দারুণ উচ্ছ্বসিত তিনি। বিশেষ করে, বন্ধু ও সাবেক ক্লাব সতীর্থ লেভানদভস্কির বিপক্ষে মাঠে নামতে তিনি উন্মুখ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রামে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে মুলার বলেছেন, 'সকল ফুটবল ভক্তের জন্য কী দারুণ একটি ড্র হলো! জনাব লেভানগোলস্কি, মিউনিখে (সেখানে অবস্থিত বায়ার্নের ঘরের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনা) শিগিগিরই তোমার সঙ্গে দেখা হচ্ছে। চলো সবাই, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের মৌসুমকে কাঁপিয়ে দেই।'

বার্সেলোনার বিপক্ষে মহাদেশীয় বিভিন্ন ক্লাব প্রতিযোগিতায় বায়ার্নের রেকর্ড খুবই সমৃদ্ধ। মুখোমুখি লড়াইয়ে ১৩ ম্যাচের নয়টিতেই জিতেছে তারা। বাভারিয়ানরা হেরেছে মাত্র দুটিতে। ড্রও হয়েছে সমানসংখ্যক ম্যাচ। গত ২০২০ সালের অগাস্টে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সাকে রীতিমতো কাঁদিয়ে ছেড়েছিল বায়ার্ন। পর্তুগালের লিসবনে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ৮-২ গোলে জিতেছিল তারা। সেদিন মুলার করেছিলেন জোড়া গোল। একবার লক্ষ্যভেদ করেছিলেন লেভানদভস্কিও।

Comments

The Daily Star  | English
Corruption Allegations Against NBR Official Matiur's Wife, Laila Kaniz Lucky

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

10h ago