ফুটবল

২০৩৪ বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার পথে সৌদি আরব

২০৩৪ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক হতে সৌদির যে উচ্চাকাঙ্ক্ষা, তা হলো দেশটিকে বিশ্বের অন্যতম ক্রীড়া পরাশক্তিতে পরিণত করার প্রচারণার সর্বশেষ পদক্ষেপ।
ছবি: রয়টার্স

আগামী ২০৩৪ সালের বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ হওয়ার লড়াই থেকে সরে দাঁড়াল অস্ট্রেলিয়া। ফলে ওই আসরের আয়োজক হওয়ার জন্য সৌদি আরবের পথ প্রশস্ত হলো।

বিশ্বকাপের আয়োজক হতে প্রস্তাব দেওয়ার জন্য মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল ফিফা। এই সময়সীমার শেষদিনে এসে ফুটবল অস্ট্রেলিয়া তাদের বিড প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ফলে ২০৩৪ বিশ্বকাপের আয়োজক হতে যারা ফেভারিট, সেই সৌদির সম্ভাবনা আরও উজ্জ্বল হয়েছে।

ফুটবল অস্ট্রেলিয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, 'আমরা ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য প্রস্তাব দেওয়ার সুযোগটি পর্যবেক্ষণ করেছি এবং সব কিছু বিবেচনায় নিয়ে ২০৩৪ সালে অনুষ্ঠেয় প্রতিযোগিতাটির জন্য বিড না করার সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি।'

ভিন্ন ভিন্ন মহাদেশে বিশ্বকাপ আয়োজনের পরিকল্পনায় ফিফা এবার এশিয়া ও ওশেনিয়া অঞ্চলের দেশগুলোকে বিড করার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। গোটা এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) সমর্থন পাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যে অবস্থিত সৌদি আরব।

২০৩৪ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক হতে সৌদির যে উচ্চাকাঙ্ক্ষা, তা হলো দেশটিকে বিশ্বের অন্যতম ক্রীড়া পরাশক্তিতে পরিণত করার প্রচারণার সর্বশেষ পদক্ষেপ। তাদের প্রতিবেশী কাতার গত বছর মধ্যপ্রাচ্যে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ আয়োজন করে।

গত ৪ অক্টোবর এক বিবৃতিতে ২০৩০ বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশগুলোর নাম ঘোষণা করে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। ইউরোপের স্পেন ও পর্তুগাল, আফ্রিকার মরক্কো এবং দক্ষিণ আমেরিকার আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়েতে হবে আসরটি।

যৌথভাবে ২০৩০ বিশ্বকাপের মূল আয়োজক থাকবে মরক্কো, স্পেন ও পর্তুগাল। আর বিশ্বকাপের শতবর্ষ উপলক্ষে একটি করে ম্যাচ হবে আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়েতে।

Comments