ফুটবল

সিঙ্গাপুরের জালে বাংলাদেশের মেয়েদের ৮ গোল

প্রথমার্ধে তিনবার প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর পর দ্বিতীয়ার্ধে তারা গোলের উল্লাস করল আরও পাঁচবার!
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

ফের পুরোটা সময় আক্রমণের ঝড় বইয়ে দিয়ে প্রতিপক্ষকে কোণঠাসা করে রাখল বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে তিনবার প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর পর দ্বিতীয়ার্ধে তারা গোলের উল্লাস করল আরও পাঁচবার! দুর্ধর্ষ পারফরম্যান্সে দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচে সিঙ্গাপুরকে স্রেফ গুঁড়িয়ে দিল সাইফুল বারি টিটুর শিষ্যরা।

সোমবার কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ১২ ধাপ এগিয়ে থাকা প্রতিপক্ষকে ৮-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে বাংলাদেশ। জোড়া লক্ষ্যভেদ করেন তহুরা খাতুন ও ঋতুপর্ণা চাকমা। একবার করে জাল খুঁজে নেন সানজিদা আক্তার, অধিনায়ক সাবিনা খাতুন, সুমাইয়া মাতসুশিমা ও শামসুন্নাহার জুনিয়র।

গত ১ ডিসেম্বর একই ভেন্যুতে প্রথম প্রীতি ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতেছিল লাল-সবুজের মেয়েরা। সেদিনও জোড়া গোল করেছিলেন তহুরা। অন্য গোলটি পেয়েছিলেন আফিদা খন্দকার। এদিন রীতিমতো একপেশে লড়াইয়ে কোনো পাত্তাই পায়নি সিঙ্গাপুর।

একাধিক সুযোগ নষ্টের পর ষোড়শ মিনিটে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মাসুরা পারভীনের হেড থেকে বল পেয়ে হেড করেই তা জালে পাঠান তহুরা। দুই মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ হয়। সাবিনার কর্নারে ডি-বক্সে জটলার মধ্যে আলতো টোকায় নিশানা ভেদ করেন ঋতুপর্ণা। ২৪তম মিনিটে ম্যাচের চালকের আসনে বসে পড়ে স্বাগতিকরা। ঋতুপর্ণার শট ধরে রাখতে পারেননি সিঙ্গাপুরের গোলরক্ষক। আলগা বলে পা ছুঁইয়ে স্কোরলাইন ৩-০ করেন তহুরা।

বিরতির পরও আক্রমণাত্মক মেজাজ বজায় রাখেন বাংলাদেশের মেয়েরা। ম্যাচের ৫০তম মিনিটে সানজিদা বল জালে জড়ালেও অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়। সাত মিনিট পর আর আফসোস করতে হয়নি দলকে। তহুরার শট গোলরক্ষক ঠেকানোর পর ফিরতি শটে গোল করেন সানজিদা। ছয় মিনিট পর বাংলাদেশের জয় একরকম নিশ্চিত করে ফেলেন ঋতুপর্ণা। এবার সানজিদাই বলের যোগানদাতা। তার পাসে উঁচু শটে ঋতুপর্ণা জাল কাঁপান।

৬৯তম মিনিটে তহুরার গোল অফসাইডের কারণে বাতিল হলে হ্যাটট্রিক পাওয়া হয়নি তার। তবে সিঙ্গাপুর স্বস্তিতে থাকতে পারেনি। শেষদিকে আরও তিনবার বল অতিক্রম করে তাদের গোললাইন। ৭৫তম মিনিটে বদলি শামসুন্নাহারের কাছ থেকে বলে পেয়ে গোল করেন সাবিনা। ৮৭তম মিনিটে দারুণ ভলিতে গোলদাতাদের তালিকায় নাম ওঠান আরেক বদলি মাতসুশিমা। আর যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে ঋতুপর্ণার পাসে শামসুন্নাহার ৮-০ করেন স্কোরলাইন।

আগে একবারই মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। সেবার সিঙ্গাপুরের মাঠে ৩-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। ছয় বছর পর ফের সাক্ষাতে দুটি প্রীতি ম্যাচেই অনায়াসে জিতল টিটুর দল।

Comments