ফুটবল
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

পাঁচ গোলের নাটকীয় লড়াইয়ে হার, তবু গ্রুপসেরা বার্সেলোনা

'এইচ' গ্রুপের ম্যাচে বেলজিয়াম ক্লাবটির মাঠে ৩-২ গোলে হেরেছে কাতালানরা। তবে ৬ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে তারা অবস্থান করছে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে।
ছবি: এএফপি

নিয়মিত একাদশে ব্যাপক বদল এনে খেলতে নামা বার্সেলোনা পেল হারের তেতো স্বাদ। তবুও মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে থাকায় তারা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পা রাখল উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোতে। আসর থেকে বিদায়ের আগে নাটকীয় লড়াইয়ে স্মরণীয় জয় তুলে নিল রয়্যাল অ্যান্টওয়ার্প।

বুধবার রাতে 'এইচ' গ্রুপের ম্যাচে বেলজিয়াম ক্লাবটির মাঠে ৩-২ গোলে হেরেছে কাতালানরা। তবে ৬ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে তারা অবস্থান করছে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে। গ্রুপের আরেক ম্যাচে নিজেদের মাঠে শাখতার দোনেৎস্ককে ৫-৩ গোলে হারিয়ে নকআউটে জায়গা করে নিয়েছে এফসি পোর্তো। দুইবারের দেখাতেই বার্সার কাছে হারায় পোর্তো ১২ পয়েন্ট নিয়েও হয়েছে গ্রুপ রানার্সআপ।

তৃতীয় হওয়া শাখতার ৯ পয়েন্ট নিয়ে উয়েফা ইউরোপা লিগের টিকিট পেয়েছে। আর পয়েন্ট তালিকায় সবার নিচে থাকা অ্যান্টওয়ার্পের পয়েন্ট ৩। আগের পাঁচ ম্যাচের সবকটিতেই হেরেছিল তারা।

নিজেদের মাঠে অ্যান্টওয়ার্পকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরু করেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু ফিরতি দেখায় জাভি হার্নান্দেজের শিষ্যরা এবার পরাস্ত হয়েছে। শুরুর একাদশে আট পরিবর্তন আনার ম্যাচে তারা পেরে ওঠেনি উজ্জীবিত প্রতিপক্ষের সঙ্গে।

দ্বিতীয় মিনিটেই নিজেদের ভুলে পিছিয়ে পড়ে স্প্যানিশ পরাশক্তিরা। ওরিওল রোমেউয়ের পাস কেড়ে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন আর্থার ভেরমিরেন। ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা বার্সা সমতায় ফেরে ৩৫তম মিনিটে। লামিনে ইয়ামালের রক্ষণচেরা পাসে গোল করেন ফেরান তরেস। ওই স্কোরলাইনে প্রথমার্ধ শেষ করে দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে উত্তেজনা ছড়ায় দ্বৈরথে। স্বাগতিকদের ভিনসেন্ট ইয়ানসেন বল জালে পাঠালেও অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়। এরপর ইয়ামালের শট বাধা পায় পোস্টে। ৫৩তম মিনিটে সরাসরি লাল কার্ড দেখা সার্জি রবার্তো রক্ষা পান ভিএআরের কারণে। ফাউলের জন্য সিদ্ধান্ত পাল্টে তাকে হলুদ কার্ড দেখানো হলে হাঁপ ছেড়ে বাঁচে বার্সেলোনা।

তবে স্বস্তি টেকেনি বেশিক্ষণ। ৫৬তম মিনিটে রোমেউ বল হারান আলহাসান ইউসুফের কাছে। তার পাস পেয়ে নিশানা ভেদ করেন ইয়ানসেন। যোগ করা সময়ে দেখা মেলে চরম নাটকীয়তার। প্রথম মিনিটেই মার্ক গিউ সমতা টানলে পয়েন্টের আশা মেলে বার্সার। কিন্তু পরের মিনিটেই গিওর্গি লিনিখেনা জাল খুঁজে নিলে উত্তাল হয়ে ওঠে অ্যান্টওয়ার্পের গ্যালারি।

Comments