গুরবাজ-ফারুকি-রশিদের নৈপুণ্যে নিউজিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিল আফগানরা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কোনো টেস্ট খেলুড়ে দলের বিপক্ষে এটাই আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড।
ছবি: এক্স

রহমানউল্লাহ গুরবাজের ক্যারিয়ারসেরা ইনিংস এনে দিল লড়াইয়ের পুঁজি। এরপর বল হাতে জ্বলে উঠলেন ফজলহক ফারুকি ও অধিনায়ক রশিদ খান। অসাধারণ পারফরম্যান্সে নিউজিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে আফগানিস্তান তুলে নিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয়।

শনিবার গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে 'সি' গ্রুপের ম্যাচে ৮৪ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতেছে আফগানরা। টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ১৫৯ রান তোলে তারা। জবাবে ২৮ বল বাকি থাকতে স্রেফ ৭৫ রানে গুটিয়ে যায় কিউইরা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কোনো টেস্ট খেলুড়ে দলের বিপক্ষে এটাই আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড। সব মিলিয়ে তৃতীয় সেরা। ২০২১ সালের আসরে স্কটল্যান্ডকে ১৩০ রানে হারিয়েছিল তারা। আর চলমান আসরের আগের ম্যাচে উগান্ডার বিপক্ষে দলটি জিতেছিল ১২৫ রানে।

অন্যদিকে, ২০ ওভারের ক্রিকেটের বিশ্ব আসরে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো দুই অঙ্কের স্কোরে অলআউট হলো নিউজিল্যান্ড। ২০১৪ সালের আসরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে স্রেফ ৬০ রানে থেমেছিল তাদের ইনিংস। আর ২০০৯ সালের বিশ্বকাপে পাকিস্তান তাদেরকে গুটিয়ে দিয়েছিল ৯৯ রানে।

ম্যাচসেরা ওপেনার গুরবাজ ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হওয়ার আগে করেন ঝড়ো ৮০ রান। ৫৬ বল মোকাবিলায় তার ব্যাট থেকে আসে সমান পাঁচটি করে চার ও ছক্কা। তার কারণেই ইনিংসের দ্বিতীয় ভাগে পাল্টা আক্রমণে ১০৪ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে আফগানরা। প্রথম ভাগে কোনো উইকেট না খোয়ালেও মাত্র ৫৫ রান আনতে পেরেছিল তারা।

লক্ষ্য তাড়ায় নামা নিউজিল্যান্ডকে পাওয়ার প্লেতে কাঁপিয়ে দেন বাঁহাতি পেসার ফারুকি। ম্যাচে তার শিকার ১৭ রানে ৪ উইকেট। পাওয়ার প্লের পরও কেইন উইলিয়ামসনের দলকে ঘুরে দাঁড়ানোর কোনো সুযোগ দেননি লেগ স্পিনার রশিদ। তিনিও ৪ উইকেট পান ১৭ রানের বিনিময়ে। বাকি ২ উইকেট যায় মোহাম্মদ নবির ঝুলিতে।

ইব্রাহিম জাদরানের সঙ্গে ১০৩ রান যোগ করেন গুরবাজ। উগান্ডার বিপক্ষে তাদের জুটিতে এসেছিল ১৫২ রান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে উদ্বোধনী জুটিতে টানা দুই ম্যাচে শতরানের জুটি হলো এই প্রথম। ইব্রাহিম করেন ৪১ বলে ৪৪ রান। তিনে নেমে আজমতউল্লাহ ওমরজাই খেলেন ১৩ বলে ২২ রানের ইনিংস। আর কেউ দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি।

এই ম্যাচের আগে আফগানিস্তানের বোলিং বিভাগকে এবারের বিশ্বকাপের সেরাদের একটি বলেছিলেন উইলিয়ামসন। আফগানদের হুমকি হিসেবে দেখার কথাও উল্লেখ করেছিলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। তার পূর্বানুমান সত্যি প্রমাণ করে ছাড়লেন ফারুকি-রশিদ-নবিরা।

রান তাড়ায় প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলা তো দূরের কথা, কোনো পর্যায়েই স্বাচ্ছন্দ্যে ছিল না নিউজিল্যান্ড। তাদের মাত্র দুই খেলোয়াড় পৌঁছান দুই অঙ্কে। গ্লেন ফিলিপস ১৮ বলে ১৮ ও ম্যাট হেনরি ১৭ বলে ১২ রান করেন। কিউইদের সর্বোচ্চ জুটি ছিল ১৮ রানের, দ্বিতীয় উইকেটে উইলিয়ামসন ও ডেভন কনওয়ের মধ্যে।

'সি' গ্রুপের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে রশিদের দল। টানা দুই বিশাল জয়ে নেট রান রেটও (+৫.২২৫) অনেক বাড়িয়ে নিয়ে সুপার এইটে খেলার পথে শক্ত অবস্থান তৈরি করেছে তারা। গ্রুপ পর্বে আফগানদের বাকি দুই ম্যাচ পাপুয়া নিউগিনি ও বিশ্বকাপের সহ-আয়োজক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

Comments