ক্যাম্পাস

শেকৃবিতে ভেটেরিনারি ইন্টার্ন রিসিপশন ও ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) অ্যানিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন (এএসভিএম) অনুষদের সপ্তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ রিসিপশন ও ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনুষদের সব শিক্ষক ও ইন্টার্ন শিক্ষার্থীরা বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করে। ছবি: সংগৃহীত

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) অ্যানিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন (এএসভিএম) অনুষদের সপ্তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ রিসিপশন ও ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত রোববার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল ভবনের সামনে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ইন্টার্নশিপের উদ্বোধন করেন এএসভিএম অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. কেবিএম সাইফুল ইসলাম।

এরপর অনুষদের সব শিক্ষক ও ইন্টার্ন শিক্ষার্থীরা বর্ণাঢ্য র‌্যালি করে। সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের সেমিনার কক্ষে শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

আয়োজনে উপস্থিত অতিথিরা। ছবি: সংগৃহীত

অধ্যাপক ড. কেবিএম সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এই আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. অলোক কুমার পাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম, আইকিউএসি পরিচালক অধ্যাপক ড. তুহিন শুভ্র রায়, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সম্প্রসারণ বিভাগের পরিচালক ড. মো. শাহিনুর আলম। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসের অ্যাগ্রো ভেট ডিভিশনের জেনারেল ম্যানেজার জয়ন্ত দত্ত গুপ্ত।

এ ছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার শেখ রেজাউল করিম, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইন্টার্নশিপ কো-অর্ডিনেটর ড. মো. আসাদুজ্জামান এবং অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ইন্টার্নশিপ কো-অর্ডিনেটর ড. মাহফুজুল ইসলাম।

ইন্টার্ন শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন বিষয়ে দিকনির্দেশনামূলক প্রেজেন্টেশন প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোফাজ্জল হোসাইন। বিকেলে ইন্টার্ন শিক্ষার্থীদের নিয়ে রোগ প্রতিরোধ এবং ব্যবস্থাপনা বিষয়ক টেকনিক্যাল সেশন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. অলোক কুমার পাল বলেন, 'শিক্ষার্থীদের গ্রাজুয়েট হওয়ার জন্য ইন্টার্নশিপ খুবই প্রয়োজন। তবে সব বিষয়ে এখনো ইন্টার্নশিপ না থাকলেও ভেটেরিনারি শিক্ষার্থীদের মেধা ও দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য ইন্টার্নশিপ একটি ভালো সুযোগ। দক্ষ ভেটেরিনারিয়ানদের হাত ধরেই দেশে আমিষের চাহিদা পূরণ হচ্ছে। নিরাপদ আমিষ চাহিদা মেটাতে তারা কাজ করছেন। আশা করি শিক্ষার্থীরা ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে সব প্লেসমেন্ট থেকে ভালো কিছু শিখে আসবেন, নতুন নতুন বিষয় হাতে কলমে শিখবেন, সব বাধা-বিপত্তি কাটিয়ে এগিয়ে যাবেন, একজন দক্ষ ভেটেরিনারি ডাক্তার হয়ে দেশ ও জাতির উন্নয়নে অংশ নিবেন।'

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. কেবিএম সাইফুল ইসলাম বলেন, 'ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে একজন ভেটেরিনারি শিক্ষার্থীর কর্মজীবনের সূচনা হয়। আমরা বারবার বিশ্লেষণ করে সবচেয়ে কার্যকর ও শিক্ষাবান্ধব প্লেসমেন্ট ঠিক করেছি, যাতে আজকের ইন্টার্ন আগামীর একজন দক্ষ ও বিচক্ষণ ভেটেরিনারিয়ান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারেন।'

Comments