ডিপো মালিক, সরকারি তদারকির গাফিলতিতে সীতাকুণ্ডের অগ্নিকাণ্ড

বিএম কনটেইনার ডিপোসহ সংশ্লিষ্ট সরকারি তদারকি প্রতিষ্ঠানের গাফিলতির কারণে চট্টগ্রামে সীতাকুণ্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।
গত ৪ জুন রাতে সীতাকুণ্ডের বি এম ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ছবি: ছবি: মোহাম্মদ সুমন/স্টার

বিএম কনটেইনার ডিপোসহ সংশ্লিষ্ট সরকারি তদারকি প্রতিষ্ঠানের গাফিলতির কারণে চট্টগ্রামে সীতাকুণ্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

ওই ঘটনার ১ মাস পর চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

আজ বুধবার বিকেলে বিভাগীয় কমিশনারের কাছে ১৯ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন জমা দিয়েছে কমিটি।

এছাড়া প্রতিবেদনের সঙ্গে ৩০০ পৃষ্ঠার বিভিন্ন নথি ও জবানবন্দিও জমা দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট আইন সংশোধনসহ ২০টি সুপারিশ করা হয়েছে।

এই তদন্ত কমিটির প্রধান ও চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনায় ডিপো কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সরকারি তদারকি প্রতিষ্ঠানকে দায়ী করে প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে।

মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, 'বিস্ফোরণের কারণ, এর জন্য দায়ী ও সুপারিশকে সামনে রেখে তদন্ত করা হয়। সংশ্লিষ্ট ২৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।'

'হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড ভর্তি একটি কনটেইনার থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত করেছে তদন্ত কমিটি,' যোগ করেন তিনি।

গত ৪ জুন রাতে সীতাকুণ্ডের বি এম ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ৫০ জন মারা গেছেন এবং প্রায় দেড়শ জন আহত হয়েছেন।

ঘটনা তদন্তে পরদিন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে প্রধান করে ৯ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন বিভাগীয় কমিশনার মো. আশরাফ উদ্দিন।

কমিটিকে ৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এছাড়াও এ ঘটনায় বন্দর কর্তৃপক্ষ, ফায়ার সার্ভিস, জেলা প্রশাসন, কাস্টমস কর্তৃপক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে।

Comments

The Daily Star  | English

Climate change to wreck global income by 2050: study

Researchers in Germany estimate that climate change will shrink global GDP at least 20% by 2050. Scientists said that figure would worsen if countries fail to meet emissions-cutting targets

1h ago