অপরাধ ও বিচার

রাতভর নাটকীয়তার পরে চট্টগ্রামে দুদকের এএসআই গ্রেপ্তার

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চট্টগ্রামের এক দুদক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা গিয়ে তাকে শনাক্ত করেছি। তবে ব্যক্তির দায় প্রতিষ্ঠান নেবে না।’
দুদকের এএসআই গ্রেপ্তার
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

চট্টগ্রামে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা ঘুষ আনতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক কর্মচারী।

তার নাম কামরুল হুদা। দুদকের চট্টগ্রাম কার্যালয় ও পুলিশ নিশ্চিত করেছে, তিনি সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে কুমিল্লায় কর্মরত। তার বাড়ি কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় উপজেলায়।

গত রাত ১০টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ থানা এলাকায় একটি রেস্তোরাঁ থেকে কামরুল হুদাকে আটক করে পুলিশ।

তবে রাতভর নাটকীয়তার পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের কথা জানায়।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সন্তোষ কুমার চাকমা দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'স্থানীয় গয়না ব্যবসায়ী পরিমল ধরের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ কামরুল হুদাকে পাঁচলাইশ এলাকার জামান রেস্তোরাঁ থেকে আটক করে। পরিমল বাদী হয়ে মামলা করেছেন। বিস্তারিত জানতে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।'

পাঁচলাইশ থানা পুলিশ সূত্র জানায়, কামরুল হুদাকে আটকের খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হন দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম কার্যালয়ের কর্মকর্তারা। সেখানে পুলিশ ও দুদক কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চট্টগ্রামের এক দুদক কর্মকর্তা বলেন, 'আমরা গিয়ে তাকে শনাক্ত করেছি। তবে ব্যক্তির দায় প্রতিষ্ঠান নেবে না।'

পুলিশ সূত্র জানায়, কিছু দিন আগে চট্টগ্রাম নগরীর গয়না ব্যবসায়ী পরিমল ধরকে দুদক কর্মকর্তা কামরুল হুদা জানান তার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ এসেছে। এটি সমাধান করতে হলে ২০ লাখ টাকা দিতে হবে।

শনিবার রাতে কামরুল হুদার সঙ্গে দেখা করতে জামান রেস্তোরাঁয় যান পরিমল ধর। তিনি আগেই পুলিশকে বিষয়টি জানিয়ে রেখেছিলেন। পরিমল দেখা করতে যাওয়ার পরে পুলিশ কামরুলকে হাতে নাতে আটক করে, জানায় সূত্র।

Comments