নারায়ণগঞ্জ-৪: প্রচারণায় হামলায় সুপ্রিম পার্টির প্রার্থীসহ আহত ৬

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির প্রার্থী সেলিম আহমেদের প্রচারণায় হামলায় প্রার্থীসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।
প্রচারণা চালাতে গিয়ে হামলায় আহত বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির প্রার্থী সেলিম আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির প্রার্থী সেলিম আহমেদের প্রচারণায় হামলায় প্রার্থীসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ফতুল্লার কাঠেরপুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় পুলিশ।

সেলিম আহমেদ লিবারেল ইসলামিক জোটের শরিক বাংলাদেশ জনদলের (বিজেডি) মহাসচিব। তিনি জোটের শরিক দল সুপ্রিম পার্টির দলীয় প্রতীক 'একতারা' নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তিনবারের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান।

আহত প্রার্থী সেলিম আহমেদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সন্ধ্যায় ফতুল্লার কাঠেরপুল এলাকায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ভোট চেয়ে লিফলেট বিতরণের সময় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আমিসহ দলের ছয় নেতাকর্মী আহত হয়েছি।'

'স্থানীয় আবজাল মিয়া ও তার ছেলে ইমরানসহ অন্তত ২০-২৫ জনের একটি দল হামলায় অংশ নেয়। তারা প্রথমে আমাদের লিফলেট বিতরণে বাধা দেয়। পরে প্রতিবাদ করলে তারা আমার নেতাকর্মীদের মারধর করে, আমি বাধা দিলে আমাকেও মারধর করে', যোগ করেন তিনি।

সেলিম আহমেদ বলেন, 'হামলাকারী ইমরানসহ অন্যরা স্থানীয় যুবলীগের কর্মী বলে এলাকাবাসী জানান। আমি পুলিশকে বলেছি, এ হামলার বিচার চাই।'

এ বিষয়ে ফতুল্লা থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফায়জুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে জানান, তিনি হামলার কোনো খবর পাননি। এ ঘটনায় কারা জড়িত সে বিষয়েও তিনি নিশ্চিত না।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। হামলাকারীরা কোনো দলের কর্মী কি না, সে ব্যাপারে নিশ্চিত নই। তবে যে দলেরই হোক না কেন তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।'

ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা নিয়ে গঠিত নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে এবার প্রার্থী আটজন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী শেষদিনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় আসনটিতে শামীম ওসমানের প্রভাব সবচেয়ে বেশি। 
 

Comments

The Daily Star  | English
bailey road fire

Owners of shopping mall, ‘Chumuk’, ‘Kacchi Bhai’ sued

Police have filed a case against Amin Mohammad Group and three persons for the deadly fire at the Green Cozy Cottage shopping mall on Bailey Road in Dhaka that claimed 46 lives

1h ago