ফরিদপুর-৩

ঈগল প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় নৌকার ২ সমর্থক আহতের অভিযোগ

গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বিষ্ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ফরিদপুর
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের সমর্থকদের হামলায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামীমুল হকের নৌকার দুই সমর্থক আহত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বিষ্ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন-- কামরুল মোল্লা  (৪৩) ও সেলিম শেখ (৪০)।

তাদের প্রথমে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ও পরে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

আহত সেলিম শেখ  জানান, তারা কয়েকজন নৌকার লিফলেট বিতরণ করছিলেন। এসময় একটি মাইক্রোবাস দেখে তারা নৌকা নৌকা বলে শ্লোগান দেন। ওই গাড়ির পেছনে কয়েকটি মোটরসাইকেলে হেলমেট পরা তরুণ ছিলেন। তারা নৌকার পক্ষে শ্লোগান দেওয়ায় মোটরসাইকেল থামিয়ে তাদের এলোপাতারি মারধর করে ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করেন।

ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ওয়াহিমুল ইসলাম ফাহিম বলেন, আহত দুই জনের অবস্থা গুরুতর। একজনের মাথায় আঘাত রয়েছে, আরেকজনের শরীরের একাধিকস্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামীম হক ও সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মো. ইশতিয়াক আহতদের দেখতে গত রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে যান।

শামীম হক এ ঘটনার সঙ্গে প্রতিপক্ষ স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের সমর্থকেরা জড়িত উল্লেখ করে বলেন, এভাবে একের পর এক সন্ত্রাস করছে তারা। এটি ভোট করার জন্য নয়, ভোটকে ব্যাহত করার জন্য, বানচালের জন্য এবং বিএনপি-জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য করছে তারা।

শামীম হক আরও বলেন, আমি এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকে জানাব, বলবো নৌকার পক্ষে ফরিদপুর সদরে যারা কাজ করে তারা মৃত্যু ঝুঁকিতে রয়েছে।

তিনি বলেন, ফরিদপুরের অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ। তারপরও আমি সবাইকে বলব আপনারা  ধৈয্য ধরুন, কেউ আইন নিজের হাতে নেবেন না।

অভিযোগ অস্বীকার করে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের নির্বাচনী সমন্বয়কারী মো. শোয়েবুল ইসলাম বলেন, তারা (নৌকার সমর্থকরা) নিজেরা ঘটিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা দোষ চাপাচ্ছে। এর আগে সেখানে নৌকার লোকেরাই বরং তাদের কর্মীদের ওপর বেশ কয়েকটি হামলা করে গুরুতর আহত করেছে। এ ঘটনায় একাধিক মামলাও হয়েছে। এখন পরিকল্পিতভাবে নিজেদের লোকদের উপর হামলা করে রাজনৈতিক ফায়দা নিতে চাইছে নৌকার প্রার্থী। এটি একটি রাজনৈতিক সাবোটাজ।

ফরিদপুরের কোতায়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম দুপুরে ডেইলি স্টারকে জানান, সোমবার রাতে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর এলাকায় সড়কের পাশে  নৌকার দুই সমর্থক পড়ে রয়েছে খবর শুনে টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে আহত দুই ব্যাক্তিকে পুলিশ যাওয়ার আগেই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আহত ব্যক্তিরা কাউকে চিনতে পারেনি বলে জানিয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। 

পরে, বিকেলে এ ঘটনায় আহত সেলিম শেখের বোন রাশেদা বেগম বাদী হয়ে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১০-১৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

 

Comments

The Daily Star  | English

Medium of education should be mother language: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said that the medium for education in educational institutions should be everyone's mother tongue

28m ago