‘ছাত্রলীগ জানে কীভাবে পিটাইতে হয়’ বলা সেই নেতাকে আদালতের শোকজ

নরসিংদী যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং নরসিংদী-১ নির্বাচনী এলাকার নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির সদস্য নাহিদুর রহমান নাহিদ আজ সন্ধ্যায় এক চিঠিতে তার কাছে ব্যাখ্যা চান।
নরসিংদী ক্লাবে দলের মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসানুল ইসলাম রিমন। ছবি: ভিডিও থেকে নেওয়া

নরসিংদীতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর মতবিনিময় সভায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আহসানুল ইসলাম রিমন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে পেটানোর হুমকি দিয়েছিলেন গতকাল বুধবার।

এ ঘটনার বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগ নেতা রিমনের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন আদালত। 

নরসিংদী যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং নরসিংদী-১ নির্বাচনী এলাকার নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির সদস্য নাহিদুর রহমান নাহিদ আজ সন্ধ্যায় এক চিঠিতে এ ব্যাখ্যা চান।

আদালতের পেশকার শোহরাব হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গতকালের সভায় জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসানুল ইসলাম রিমন স্বতন্ত্র প্রার্থীদের প্রসঙ্গ ধরে বলেন, 'ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কোনো স্বতন্ত্র-পতন্ত্র মানে না, মাইরের ওপর কোনো ওষুধ নাই। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানে কীভাবে পিটাইতে হয়। এই সদর আসনে কোনো স্বতন্ত্র-পতন্ত্র চলবে না।'

এমন বক্তব্যে নির্বাচনী আইন ভঙ্গের কারণে কেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তার কারণ জানতে চেয়ে শোকজ চিঠি পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে লিখিত ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

গতকাল বুধবার দ্য ডেইলি স্টারের বাংলা অনলাইন ভার্সনে 'ছাত্রলীগ জানে কীভাবে পিটাইতে হয়' শিরোনামে সংবাদটি প্রকাশিত হলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ নেতা আহসানুল ইসলাম রিমনকে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Comments

The Daily Star  | English

How Ekushey was commemorated during the Pakistan period

The Language Movement began in the immediate aftermath of the establishment of Pakistan, spurred by the demands of student organisations in the then East Pakistan. It was a crucial component of a broader set of demands addressing the realities of East Pakistan.

14h ago