‘মানসম্মত চিকিৎসা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অভিযান চলবে’

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলো যে পর্যন্ত মানসম্মত চিকিৎসা সেবা প্রদান নিশ্চিত না করবে, সে পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অভিযান চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহেদ মালিক। ফাইল ছবি

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলো যে পর্যন্ত মানসম্মত চিকিৎসা সেবা প্রদান নিশ্চিত না করবে, সে পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অভিযান চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ বৃহস্পতিবার কুমিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আয়োজিত ৬ জেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য স্থাপনা উদ্বোধন ও প্রান্তিক পর্যায়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের মাঝে ল্যাপটপ ও পিডিএ বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে তিনি এ কথা জানান।

জাহিদ মালেক বলেন, 'এর আগে স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযানে ১ হাজার ৭০০ অবৈধ ক্লিনিক-হাসপাতাল বন্ধ করা হয়েছে। যারা এখনো নিবন্ধন করেনি বা নিবন্ধন দেখাতে পারছে না, সেসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হবে।'

কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখে ১০ শয্যার আইসিইউ, পৃথক আইসোলেশন ওয়ার্ড, অক্সিজেন জেনারেটর ও অপটিক্যাল ফাইভার ব্রংকসপিক মেশিন উদ্বোধন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, 'উন্নত সেবার জন্য এখন ঢাকায় যেতে হবে না। সাধারণ মানুষ কুমিল্লাতে তথা নিজের এলাকাতেই সব স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসকদের উপস্থিতি, রোগীদের সেবা ও হাসপাতাল পরিষ্কারে সার্বিক বিষয়গুলো খেয়াল করলে আন্তর্জাতিক মানের হাসপাতাল হবে দেশের হাসপাতালগুলো।'

'দেশের প্রতিটা সরকারি হাসপাতালের স্বাস্থ্য সেবার মান, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও চিকিৎসকের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে মন্ত্রী নিজে বা তার প্রতিনিধিরা সব জায়গা পরিদর্শন করবেন। প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসা খাতে যথেষ্ট উন্নয়ন করেছেন। তবে জনগণ চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন কি না, তা নিশ্চিত করতে হবে', বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, করোনাকালে দেশে ১৫ হাজার নতুন চিকিৎসক ও ১৮ হাজার নতুন নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এসময়ে দেশে ৩০ কোটি করোনার টিকা (১১ কোটি উপহারসহ) কিনে ১৩ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। সব খরচ বাদে এতে প্রায় ৪৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মত বিনিময় করেন কুমিল্লা-৫(বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনের সংসদ সদস্য আবুল হাসেম খান, কুমিল্লা-২ (হোমনা-তিতাস) আসনের সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ মেরী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য বিভাগের সচিব ড. মো. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশীদ আলম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (মেডিকেল এডুকেশন) অধ্যাপক ডা. একেএম আমিরুল মোরশেদ।

কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গণে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ৬ জেলার ২৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়। এ ছাড়া এসব জেলার স্বাস্থ্যবিভাগের বরাদ্দপত্র স্ব স্ব সিভিল সার্জনকে হস্তান্তর করা হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী পরে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতাল পরিদর্শন করে হাসপাতালের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

সেসময় স্বাস্থ্য খাতের অর্থাৎ বিএমের নেতা, সিটি করপোরেশনের জনপ্রতিনিধি প্যানেল মেয়র হাবিবুল আল-আমিন সাদীসহ জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

BCL men 'beat up' students at halls

At least six residential students of Dhaka University's Sir AF Rahman were beaten up allegedly by a group of Chhatra League activists of the hall unit for "taking part" in the anti-quota protest tonight and posting their photos on social media

2h ago