বাংলাদেশ

ঋণের মামলায় পাবনার ৩৭ কৃষকের জামিন

ঋণের মামলায় পাবনার ৩৭ কৃষকের সবাই জামিন পেয়েছেন। জামিন পাওয়া কৃষকদের মধ্যে ১২ জন কারাগারে ছিলেন। পাবনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক মো. শামসুজ্জামান তাদের জামিন দেন।
পাবনা
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

ঋণের মামলায় পাবনার ৩৭ কৃষকের সবাই জামিন পেয়েছেন। জামিন পাওয়া কৃষকদের মধ্যে ১২ জন কারাগারে ছিলেন। পাবনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক মো. শামসুজ্জামান তাদের জামিন দেন।

এর আগে গ্রেপ্তারকৃত ১২ জন কৃষককে আদালতে হাজির করা হয় এবং বাকী ২৫ জন কৃষক আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।

কৃষকদের পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তৌফিক ইমাম খান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, কৃষকরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে ন্যায় বিচারের স্বার্থে এবং মানবিক কারণে আদালত ১ হাজার টাকা বন্ডে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

এর আগে ঈশ্বরদী উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ভারইমারি গ্রামের ১২ জন কৃষককে ঋণ খেলাপির মামলায় গ্রেপ্তার করে শুক্রবার জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ। তারা বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক নামের একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ২০১৬ সালে ৩০-৪০ হাজার টাকা করে ঋণ নিয়েছিলেন। তার সবাই ভারইমারি উত্তরপাড়া সবজি চাষি সমবায় সমিতির সদস্য। এই সমিতির ৪০ জন কৃষক মোট ১৬ লাখ টাকা ঋণ দিয়েছিলেন।

ঋণ পরিশোধ না করায় ৩৭ জন কৃষকের কাছে সুদাসলে প্রায় ১৩ লাখ টাকা পাওনা হয়েছে। ঋণ আদায়ে প্রতিষ্ঠানটি ২০২১ সালে ৩৭ জন কৃষকের নামে মামলা করে। পাবনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ১৫ নভেম্বর কৃষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করলে পুলিশ ১২ জনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠায়।

ব্যাংকের আইনজীবী আব্দুল মজিদ মাজেদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, আসামিরা জামিন পেলেও মামলা চলবে।

 

Comments