রাজনীতি

হিসাব করেন কোন দেশে পালাবেন: জিএম কাদেরের উদ্দেশে রাঙ্গা

জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যানের বনানী ও দলের কাকরাইল অফিস দখলের হুমকি দিয়ে জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, জাতীয় পার্টি কারও বাপের সম্পত্তি না।
‘পল্লিবন্ধু এরশাদ প্রতিষ্ঠিত উপজেলা থেকে প্রাদেশিক সরকারব্যবস্থা প্রবর্তন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা। ছবি: স্টার

জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যানের বনানী ও দলের কাকরাইল অফিস দখলের হুমকি দিয়ে জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, জাতীয় পার্টি কারও বাপের সম্পত্তি না।

আজ রোববার সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে জাপার প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ গ্রুপ আয়োজিত উপজেলা দিবস উপলক্ষে 'পল্লিবন্ধু এরশাদ প্রতিষ্ঠিত উপজেলা থেকে প্রাদেশিক সরকারব্যবস্থা প্রবর্তন' শীর্ষক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

এসময় রাঙ্গা বলেন, 'আমি ২৮ বছর ধরে জাতীয় পার্টির রাজনীতি করেছি। এখন দলে যেটি হচ্ছে, যাকে ইচ্ছে বের করে দেওয়া হচ্ছে, যাকে ইচ্ছে নেওয়া হচ্ছে। জাতীয় পার্টি কারও বাপের সম্পত্তি না। অনেকে মনে করতে পারেন, এটা তার বাপের সম্পত্তি। জাতীয় পার্টি এরশাদের দল। এর নেতৃত্বে থাকবেন রওশন এরশাদ।'

জাপার বর্তমান চেয়ারম্যান জি এম কাদেরকে উদ্দেশে তিনি বলেন, 'এরশাদের অনুগত যারা, তাদেরকে আপনি (জিএম কাদের) দল থেকে বের দেবেন, তারাই একদিন জুতাপেটা করে আপনাকে দল থেকে বের করে দেবে। জীবনের অর্ধেকটা সময় জাতীয় পার্টি করলাম। আর এখন এককথায় দল বের করে দেওয়া হলো, এই ধারা পরিবর্তন করতে হবে।'

'জিএম কাদেরের মতো দলের সঙ্গে, রওশন এবং এরশাদের সঙ্গে এত বড় দুর্নীতি-ফ্রড কাজ আর কখনো কেউ করেননি। আগামী নির্বাচনের মনোনয়নকে কেন্দ্র করে জিএম কাদের যা করছেন, তাতে মনে হচ্ছে- জাতীয় পার্টি একটি জাতীয়তাবাদী দল হয়ে গেছে', বলেন তিনি।

এই সংসদ সদস্য বলেন, 'আমরাই এরশাদের সব স্বপ্ন-আকাঙ্ক্ষা পূরণ করব। আমাদের ডাকলেও আর ফিরব না। প্রয়োজনে এমপি পদে থাকব না। কিন্তু জিএম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি আর করব না।'

জিএম কাদেরের তীব্র সমালোচনা করে রাঙ্গা বলেন, 'তিনি (জিএম কাদের) জীবনেও জাতীয় পার্টির রাজনীতি করেননি। তিনি পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের একজন ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। তিনি কি রাজনীতিবিদ ছিলেন? তিনি কি রাজনীতি জানেন, বুঝেন? আমি ওয়াদা করছি যে, আমরা সময়মতো জায়গামতো পৌঁছে যাব। তাদের আস্থাখুঁড়ে নিক্ষেপ করা হবে।'

তিনি বলেন, 'আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে অনুষ্ঠেয় সংসদ অধিবেশনে রওশন এরশাদ বিরোধীদলীয় নেত্রী হিসেবে বক্তব্য দেবেন। আপনাদের শক্তি থাকলে ঠেকাবেন। দেখব কয়জন এমপি আপনাদের সঙ্গে থাকে। আসলে ৩ জন এমপি ছাড়া তাদের সঙ্গে আর কোনো এমপি নেই। এই ৩ জন এমপিও আমাদের সঙ্গে চলে আসবেন।'

রাঙ্গা বলেন, 'রওশন এরশাদের নেতৃত্বে যে জাতীয় পার্টি সেটিই মূলধারা। আর জিএম কাদেরের নেতৃত্বে যে জাতীয় পার্টি, সেটি ব্যবসায়িক জাতীয় পার্টি হয়ে গেছে। এই গ্রুপে গেলে পয়সা দিয়ে জাপা করতে হবে।'

তিনি বলেন, 'জিএম কাদের এবং চুন্নুদের আগামীতে জাতীয় পার্টিতে আর কোনো জায়গা নেই। ৩০ অক্টোবরের পর তাদের জায়গা বন্ধ হয়ে যাবে। এখন থেকে হিসাব করেন কোন দেশে পালাবেন। আর আমাদের কোথাও পালাতে হবে না। আমরা এই দেশেরই মানুষ। এ দেশেই থাকব।'

রাঙ্গা বলেন, 'জিএম কাদেরকে বিএনপিও সন্দেহ করে, আওয়ামী লীগও সন্দেহ করে। আপনাকে কেউই নিতে চায় না। যেদিকে টাকা বেশি দেবে আপনি সেদিকেই যাবেন।'

'বনানী ও কাকরাইলের অফিসে আমরাই একদিন যাব। সেদিন থেকে আমরাই ওই অফিসগুলো পরিচালনা করব', যোগ করেন তিনি।

রাঙ্গার এই বক্তব্য প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জিএম কাদের দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আসলে তার এই রুচিহীন বক্তব্য প্রসঙ্গে আমার কোনো মন্তব্য নেই। তিনি দলের কেউ না।'

Comments