রাজনীতি

‘যারা আমাদের ভোট দেবে না তাদের কেন্দ্রে আসার দরকার নেই’

বগুড়ায় উপনির্বাচন উপলক্ষে কর্মীসভায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল ইসলাম রাজ বলেছেন, 'যারা আমাদের ভোট দেবে না তাদের ভোটকেন্দ্রে আসতে হবে না।'
বগুড়ায় উপনির্বাচনে উপলক্ষে গত ৬ জানুয়ারি এক কর্মীসভায় বক্তব্য দিচ্ছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল ইসলাম রাজ। ছবি: ভিডিও থেকে নেওয়া

বগুড়ায় উপনির্বাচন উপলক্ষে কর্মীসভায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল ইসলাম রাজ বলেছেন, 'যারা আমাদের ভোট দেবে না তাদের ভোটকেন্দ্রে আসতে হবে না।'

'যারা আমাদের ভোট দেবে না, তাদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার দরকারও নেই। কথাটা এইরকম। যারা আমাদের ভোট দেবে, শুধু তারাই ভোট সেন্টারে আসবে।'

গত ৬ জানুয়ারি বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল ইউনিয়নের হলরুমে অনুষ্ঠিত এক কর্মীসভায় মাহফুজুল ইসলাম রাজ এসব কথা বলেন। তার ওই বক্তব্যের একটি ভিডিও দ্য ডেইলি স্টারের কাছে এসেছে।

ওই সভায় উপস্থিত থাকা এক সাংবাদিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, 'সেখানে আমি উপস্থিত ছিলাম। সভা শেষে নেতারা দরিদ্রদের কম্বল বিতরণ করেন।'

গত ১৮ ডিসেম্বর বিএনপির ৫ জন সংসদ সদস্য স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিলে বগুড়া সদর আসনকে শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি এটিসহ দেশের ৫ আসনে ইভিএমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। 

বগুড়া সদর আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু। 

রাজের ওই বক্তব্য দেওয়ার ভিডিওতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী রিপুসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে দেখা যায়।

বক্তব্যে মাহফুজ ইসলাম রাজ বলেন, 'এই নির্বাচনকে ঘিরে আপনাদের কাছে আমাদের অত্যন্ত  কঠিন এবং সতর্কবার্তা, সেটি হলো আপনারা যারা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারি এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারি, আপনারা কয়দিন আগে আমাদের টিটু মিলনায়তনের যে সভা হয়েছিল সেই সভায় গিয়েছিলেন। সেই সভার মাধ্যমে আমরা একটা মেসেজ আপনাদের কাছে পৌঁছেছি।'

'সেই মেসেজটি হলো সত্যিকার অর্থেই আপনার ওয়ার্ডের যারা আওয়ামী পরিবারের মানুষ, আপনি আগে তাদের কাছে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করে সেই ভোটটি আগে কনফার্ম করেন। আপনার পরিবারের ভোটটি কনফার্ম করেন। পরে যে সব মানুষ আমাদের ভোট দেবে না, তাদের কাছে আপনাদের যাওয়ার দরকার নেই।'

'...যারা আমাদের ভোট দেবে না তাদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার দরকারও নেই। কথাটা এইরকম। যারা আমাদের ভোট দেবে শুধু তারাই ভোট সেন্টারে আসবে। যারা আমাদের ভোট দেবে না, তারা ভোট সেন্টারে আসবে না,' কথাটি আবার রিপিট করেন রাজ।

রাজের এ বক্তব্যের পর উপস্থিত নেতাকর্মীরা হাততালি দেন।

তিনি আবার বলেন, 'এই কার্যক্রমটি আপনারা করবেন। কারণ এখানে থার্টি পার্সেন্ট থেকে চল্লিশ পার্সেন্ট, পঁয়তাল্লিশ পার্সেন্ট ভোট আমাদের। যেটুকুই কাস্ট হোক, সেই কাস্টের মধ্যে আমাদের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে।'

'একটা বিষয় আপনাদের মাথায় রাখতে হবে, যে প্রেক্ষাপটে নির্বাচনের আজকের অবস্থায় আমরা দাঁড়িয়েছি, সেখানে কিন্তু বিএনপির কোনো প্রার্থী নাই,' বলেন তিনি।

এ বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে মাহফুজ ইসলাম রাজ দ্য ডেইলি স্টারকে প্রথমে বলেন, 'সেটা গোকুলে। নির্বাচন যখন শুরুই হয়নি তখন।'

পরে তিনি বলেন, 'এরকম কোনো কথা, কোথাও (কর্মীসভায়) হয়নি। কথাটা অন্যভাবে প্রচার করা হচ্ছে। কথাটা ছিল যারা আমাদের লোকজন তারাই শুধু ভোট দিতে আসবে। আমাদের ভোটারদের নিয়ে আমরা ভোট করিব। যেহেতু বিএনপি ভোট করছে না, তারা (বিএনপির ভোটাররা) ভোট দিতে আসবে না। আর আমার এই কথাটাই প্রচার হচ্ছে অন্যরকম।'

Comments