সমাবেশস্থলে জড়ো হচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা

সমাবেশ ঘিরে দুপুর ১টা থেকেই নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেছেন।
রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ গেটের সামনের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে ওই শান্তি সমাবেশে যোগ দিতে জড়ো হচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। ছবি: স্টার

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ গেটে অনুষ্ঠেয় আওয়ামী লীগের 'শান্তি সমাবেশে' আসতে শুরু করেছেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

আজ বুধবার বিকেল ৩টায় 'সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে' এই সমাবেশ হবে। সমাবেশ ঘিরে দুপুর ১টা থেকেই নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেছেন।

ঘটনাস্থল থেকে দ্য ডেইলি স্টারের প্রতিবেদক জানান, বাস, পিকাপ ভ্যানসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের মাধ্যমে সমাবেশস্থলে জড় হচ্ছেন আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সমাবেশস্থলে ঢোকার সময় তাদের হাতে ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড দেখা গেছে। একইসঙ্গে তারা দলীয় স্লোগানও দিচ্ছেন।

সমাবেশ বিকেল ৩টায় শুরু হওয়ার কথা থাকলেও দুপুর ১টার পর থেকেই সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন নেতাকর্মীরা। ছবি: স্টার

যৌথভাবে এই সমাবেশের আয়োজন করছে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ ছাড়া সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা এসে জড়ো হয়েছেন। মোহাম্মদপুর আওয়ামী লীগের একটি মিছিল সমাবেশস্থলে আসতে দেখা যায়। একইসঙ্গে যাত্রাবাড়ী, মিরপুর, পুরান ঢাকাসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে এসে জড়ো হচ্ছেন। এ ছাড়া, বঙ্গভবন মোড় এলাকাতেও মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীদের সমাবেশস্থলে যেতে দেখা গেছে।

শান্তি সমাবেশে আসা বাংলাদেশ যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, বিএনপি, জামায়াত, গণ-আন্দোলনের নামে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য আর জনগণের জানমালের ক্ষতি করছে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি নেতারা বলেছিলেন ১০ ডিসেম্বরের পর দেশ নাকি খালেদা জিয়ার কথায় চলবে। আপনারাই দেখছেন ১০ ডিসেম্বরের পর আওয়ামী লীগ এখনো ক্ষমতায় আছে জনগণের সেবা করছে। বিএনপির সঙ্গে জনগণের কোনো সম্পৃক্ততা নাই। বিএনপির মিছিলে ১০ জন কর্মী নামলে ৪০ জন থাকে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জঙ্গি। সুতরাং তাদের কথায় আর এদেশের মানুষ বিশ্বাস করে না। যারা মানুষ মারে, পেট্রোল বোমা মারে, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে এদেশের জনগণ তাদেরকে আর চায় না। যারা এদেশের বিরুদ্ধে, বঙ্গবন্ধু কন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবে তাদেরকে রাজপথেই কঠোরভাবে প্রতিহত করবে যুবলীগ।

Comments

The Daily Star  | English

Small businesses, daily earners scorched by heatwave

After parking his motorcycle and removing his helmet, a young biker opened a red umbrella and stood on the footpath.

1h ago