রাজনীতি

কুমিল্লায় বিএনপির সভায় যুবলীগ-ছাত্রলীগের গুলির অভিযোগ

বিএনপির স্থানীয় নেতাকর্মীদের অভিযোগ, বিএপির পূর্ব ঘোষিত প্রতিনিধি সভায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা গুলি চালিয়েছেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মনির হোসেনের মাথায় ও যুবদল নেতা ফিরোজের পায়ে গুলি লেগেছে।
বিএনপির আহত নেতাকর্মীদের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

কুমিল্লার লালমাইয়ে বিএনপির বর্ধিত সভায় গুলিবর্ষণের ঘটনায় যুবদলের দুজন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ সহ বেশকয়েকজন  আহত হয়েছেন।

আজ শনিবার বিকেলে লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়ন বিএনপির বর্ধিত সভায় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

বিএনপির স্থানীয় নেতাকর্মীদের অভিযোগ, বিএপির পূর্ব ঘোষিত প্রতিনিধি সভায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা গুলি চালিয়েছেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মনির হোসেনের মাথায় ও যুবদল নেতা ফিরোজের পায়ে গুলি লেগেছে।

অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কামরুল হাসান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'বিএনপির লোকজন আমাদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে হামলা করেছে। আমাদের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের নাম পরে জানানো হবে। আমরা কোনো হামলা করিনি।'

ঘটনাটির ব্যাপারে জানতে চাইলে লালমাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হানিফ বলেন, আমরা ঘটনাটির কথা শুনছি। তবে সেখানে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেনি। ইটের আঘাতে দুজন আহত হয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি।

তিনি আরও বলেন, একই জায়গায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমাবেশ ঘিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিবেশ শান্ত করে। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।

আহত নেতাকর্মীদের দেখতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মনিরুল হক চৌধুরী কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়েছেন।

Comments