ভাঙ্গুড়া

এমপিপুত্রের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ উপজেলা চেয়ারম্যানের

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা বর্তমান চেয়ারম্যান মো. বাকি বিল্লাহর।
সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন ভাঙ্গুড়া উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান মো. বাকি বিল্লাহ। ছবি: স্টার

পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্থানীয় এমপি মো. মকবুল হোসেনের পুত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম হাসনায়েন রাসেলের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ এনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মো. বাকি বিল্লাহ।

আজ রোববার দুপুরে পাবনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এমপিপুত্রের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের কথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, গোলাম হাসনায়েন রাসেল সবখানে অদৃশ্য প্রভাব বিস্তার করায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানো ছাড়া কোনো উপায় নেই।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে আগামী ২১ মে ভাঙ্গুড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হবে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. বাকী বিল্লাহ (আনারস), উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র মো. গোলাম হাসনাইন রাসেল (মোটরসাইকেল)। অপরজন হলেন, পাবনা জেলা কৃষক লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজবাহুর রহমান রোজ (ঘোড়া)।

সংবাদ সম্মেলনে বাকি বিল্লাহ অভিযোগ করে বলেন, 'গোলাম হাসনাইন রাসেল আমার কর্মী সমর্থকদের ভয়-ভীতি দেখাচ্ছেন ও নির্যাতন চালাচ্ছেন। আমার কর্মী সমর্থকরা ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। এমপিপুত্র রাসেল ভাঙ্গুড়া পৌরসভার মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, এমপি মকবুল হোসেন ও তার ছেলে রাজনীতিকে পরিবারতন্ত্রে পরিণত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা উপেক্ষা করে রাসেল প্রার্থী হয়েছেন।

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, 'গত সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে থাকায় আওয়ামী লীগের কিছু নেতাকর্মীকে ব্যাপক নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। থানায় অভিযোগ দিয়েও লাভ হয় নাই। উপজেলা নির্বাচনে নির্যাতনের শিকার হয়ে আমার কর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। এই পরিস্থিতিতে আমার পক্ষে নির্বাচন করা মোটেও সম্ভব না।'

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ভাঙ্গুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লোকমান হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম মোস্তফা, হাসিনুর ইসলাম, নুরুল ইসলাম প্রমুখ।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে, এমপিপুত্র গোলাম হাসনায়েন রাসেল সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, 'আমার কর্মীরা কোথাও কাউকে অত্যাচার করেছে এমন প্রমাণ কেউ দিতে পারবে না।'

বাকি বিল্লাহর অভিযোগ সম্পর্কে তিনি বলেন, নির্বাচনে পরাজয় জেনে তার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

Comments