ইউরোপ

তুরস্কে খনি বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪১

তুরস্কের উত্তরাঞ্চলের বারতিন প্রদেশের কয়লা খনিতে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪১ হয়েছে।
বারতিনের কয়লা খনির বাইরে গণমাধ্যমকর্মী ও উদ্ধারকর্মীরা অবস্থান করছেন। ছবি: রয়টার্স
বারতিনের কয়লা খনির বাইরে গণমাধ্যমকর্মী ও উদ্ধারকর্মীরা অবস্থান করছেন। ছবি: রয়টার্স

তুরস্কের উত্তরাঞ্চলের বারতিন প্রদেশের কয়লা খনিতে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪১ হয়েছে।

গতকাল শনিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সয়লু জানান, বিস্ফোরণের সময় খনিতে ১১০ জন শ্রমিক কাজ করছিলেন। তাদের মধ্যে ৫৮ জনকে ইতোমধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে বা তারা নিজেরাই বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়েছেন।

তিনি আরও জানান, একজন শ্রমিক হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে ছাড়া পেয়েছেন। আরও ১০ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

বারতিনের কয়লা খনিতে উদ্ধার কার্যক্রম চলছে। ছবি: রয়টার্স
বারতিনের কয়লা খনিতে উদ্ধার কার্যক্রম চলছে। ছবি: রয়টার্স

তুরস্কের কর্তৃপক্ষ ঘটনার কারণ জানতে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, 'ফায়ারড্যাম্পের' কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে। কয়লাখনিতে মিথেনের মতো দাহ্য গ্যাস পাওয়া গেলে সে ঘটনাকে ফায়ারড্যাম্প বলা হয়।

জ্বালানিমন্ত্রী ফাতিহ ডনমেজ জানান, খনির আগুন মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা হলেও এখনও আইসোলেশন ও ঠাণ্ডা করার প্রক্রিয়া চলছে। ভূগর্ভের ৩৫০ মিটার নিচে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

২০১৪ সালে তুরস্কের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ কয়লা খনন দুর্ঘটনায় পশ্চিমের শহর সোমায় ৩০১ জন শ্রমিক নিহত হন।

 

Comments