লোহিত সাগরে নরওয়ের পতাকাবাহী জাহাজে হুতিদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

লোহিত সাগর ও এডেন উপসাগরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী বাব আল-মানদাব প্রণালী থেকে প্রায় ৬০ নটিকাল মাইল (১১১ কিলোমিটার) উত্তরে ট্যাংকার স্ট্রিনডা আক্রান্ত হয়।
নরওয়েজীয় তেলবাহী ট্যাংকার স্ট্রিনডা। ফাইল ছবি: এরউইন উইলেমসে/ভেসেল ফাইন্ডার
নরওয়েজীয় তেলবাহী ট্যাংকার স্ট্রিনডা। ফাইল ছবি: এরউইন উইলেমসে/ভেসেল ফাইন্ডার

লোহিত সাগরে একটি বাণিজ্যিক তেলবাহী ট্যাংকার জাহাজে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। এই হামলায় জাহাজটিতে আগুন ধরে গেলে এটি কিছু পরিমাণ ক্ষতির শিকার হয়। তবে এই ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

মার্কিন সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে গতকাল সোমবার এই তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স।

লোহিত সাগর ও এডেন উপসাগরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী বাব আল-মানদাব প্রণালী থেকে প্রায় ৬০ নটিকাল মাইল (১১১ কিলোমিটার) উত্তরে ট্যাংকার স্ট্রিনডা আক্রান্ত হয়।

এ ঘটনাটি ঘটে স্থানীয় সময় সোমবার রাত ৯ টায়। এক মার্কিন কর্মকর্তা রয়টার্সকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

অপর এক সামরিক কর্মকর্তা জানান, হামলার পর অন্য কোনো জাহাজের সহায়তা ছাড়াই স্ট্রিনডা সেখান থেকে সরে আসে।

মার্কিন সেনাবাহিনী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্সে প্রকাশিত এক পোস্টে বলেছে, 'হামলার সময় সেখানে অন্য কোনো মার্কিন জাহাজ না থাকলেও (মার্কিন নৌবাহিনীর ডেস্ট্রয়ার জাহাজ) ইউএসএস ম্যাসন এম/টি স্ট্রিনডার সাহায্যের আবেদনে সাড়া দিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।'

জাহাজটি নরওয়ের পতাকা বহন করছিল বলে জানা গেছে। নরওয়েজীয় প্রতিষ্ঠান মোউইঙ্কেল কেমিক্যাল ট্যাংকার্স এর সত্ত্বাধিকারী এবং হানসা ট্যাংকারস এর ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত। উভয় প্রতিষ্ঠানের কাছে মন্তব্য চেয়েও পায়নি রয়টার্স।  

ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে হুতিরা লোহিত সাগর ও বাব আল-মানদাব প্রণালীতে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বেশ কয়েকটি জাহাজে হামলা করে। এই নৌপথ দিয়ে মধ্যপ্রাচ্য থেকে পৃথিবীর বেশিরভাগ তেল রপ্তানি হয়। এ ছাড়া, হুতিরা ইসরায়েলি ভূখণ্ডে ড্রোন ও ব্যালিসটিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

মার্কিন ডেস্ট্রয়ার জাহাজ ইউএসএস ম্যাসন। ফাইল ছবি: রয়টার্স
মার্কিন ডেস্ট্রয়ার জাহাজ ইউএসএস ম্যাসন। ফাইল ছবি: রয়টার্স

শনিবার হুতিদের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, 'যদি গাজা তার প্রয়োজন অনুযায়ী খাবার ও ওষুধ না পায়, তাহলে লোহিত সাগর দিয়ে ইসরায়েলি বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া সব জাহাজ, তা সে দেশেরই হোক না, আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর হামলার লক্ষ্য হিসেবে বিবেচিত হবে।'

বিশ্বব্যাপী বাণিজ্যিক জাহাজের গতিবিধি নিরীক্ষাকারী প্রতিষ্ঠান কেপলারের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্ট্রিনডা মালয়েশিয়া থেকে উদ্ভিজ্জ তেল এবং জৈব জ্বালানী নিয়ে ইতালির ভেনিস শহরের উদ্দেশে রওনা হয়েছিল।

ইসরায়েলের সঙ্গে স্ট্রিনডার কোনো যোগসূত্র আছে কী না, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

ইয়েমেনের বেশিরভাগ অঞ্চল শাসন করেন হুতি বিদ্রোহীরা।

তারা জানিয়েছেন, লোহিত সাগরের এসব হামলার মাধ্যমে তারা ফিলিস্তিনিদের পক্ষে সমর্থন জানাচ্ছেন।

গত মাসে গ্যালাক্সি লিডার জাহাজটি আটক করে হুতিরা। ছবিতে জাহাজটির ওপর হুতিদের হেলিকপ্টার দেখা যাচ্ছে। ছবি: রয়টার্স
গত মাসে গ্যালাক্সি লিডার জাহাজটি আটক করে হুতিরা। ছবিতে জাহাজটির ওপর হুতিদের হেলিকপ্টার দেখা যাচ্ছে। ছবি: রয়টার্স

ইসরায়েল যতদিন পর্যন্ত গাজা উপত্যকায় হামলা অব্যাহত রাখবে, ততদিন তারা এসব উদ্যোগ চালিয়ে যাবে বলে নিশ্চিত করেছে হুতিরা।

ইসরায়েল বলেছে, জাহাজের ওপর হামলা 'ইরানের জঙ্গি কার্যক্রম', যা আন্তর্জাতিক নৌপরিবহনের ওপর বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য এসব হামলার নিন্দা জানিয়েছে। তাদের দাবি, ইরানের সমর্থন নিয়েই হুতিরা এসব হামলা চালাচ্ছে।

তেহরান উত্তরে জানিয়েছে, তাদের মিত্ররা স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।

লোহিত সাগরে চলাচলকারী পণ্যবাহী জাহাজে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের আক্রমণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রকে সংযম দেখানোর অনুরোধ করেছে সৌদি আরব।

 

Comments

The Daily Star  | English

US supports a prosperous, democratic Bangladesh

Says US embassy in Dhaka after its delegation holds a series of meetings with govt officials, opposition and civil groups

5h ago