যুক্তরাষ্ট্র ট্যাংক পাঠালেই শুধু জার্মানি ইউক্রেনে ট্যাংক পাঠাবে

বেশ কিছুদিন ধরেই কিয়েভ রাশিয়ার আগ্রাসন প্রতিহত করার জন্য মিত্রদের কাছে ট্যাংকসহ আরও শক্তিশালী অস্ত্র পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছে। এ প্রসঙ্গে জার্মানি শর্ত দিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রকেও ট্যাংক পাঠাতে হবে।
একটি লেপার্ড-২ ট্যাংকের সামনে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছেন জার্মানির চ্যান্সেলর হাওয়ার্ড শোলজ। ফাইল ছবি: রয়টার্স
একটি লেপার্ড-২ ট্যাংকের সামনে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছেন জার্মানির চ্যান্সেলর হাওয়ার্ড শোলজ। ফাইল ছবি: রয়টার্স

বেশ কিছুদিন ধরেই কিয়েভ রাশিয়ার আগ্রাসন প্রতিহত করার জন্য মিত্রদের কাছে ট্যাংকসহ আরও শক্তিশালী অস্ত্র পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছে। এ প্রসঙ্গে জার্মানি শর্ত দিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রকেও ট্যাংক পাঠাতে হবে।

বার্লিনের এক সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা রয়টার্স আজ বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানিয়েছে।

ইউরোপের বিভিন্ন অংশে মোতায়েন করা ন্যাটো জোটের সেনাবাহিনী জার্মানিতে তৈরি লেপার্ড ট্যাংক ব্যবহার করে থাকে। এই ট্যাংক ইউক্রেনের কাছে রপ্তানির যেকোনো সিদ্ধান্তে ভেটো দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে জার্মানির। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমান পরিস্থিতিতে এই ট্যাংক ইউক্রেনের জন্য সবচেয়ে উপযোগী হবে।

নাম না প্রকাশের শর্তে জার্মান সরকারের এক সূত্র জানান, একাধিক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে জার্মান চ্যান্সেলর হাওয়ার্ড শোলজ জোর দিয়ে বলেছেন, জার্মান ট্যাংকের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের নির্মিত ট্যাংকও কিয়েভে পাঠাতে হবে।

জার্মানির এই অবস্থানের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মুখপাত্র ক্যারিন জাঁ পিয়েরে বলেন, 'প্রেসিডেন্ট (বাইডেন) বিশ্বাস করেন, প্রতিটি দেশ ইউক্রেনকে কোন ধরনের নিরাপত্তা সহায়তা ও কী কী উপকরণ সরবরাহ করবে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত তাদের নিজেদেরকেই নিতে হবে'।

বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন জানান, যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার হামলায় ইউক্রেনের ক্ষতিগ্রস্ত জ্বালানি ও বিদ্যুৎ উৎপাদন অবকাঠামোর সংস্কারের জন্য ১২৫ মিলিয়ন ডলার দেবে।

এখন পর্যন্ত রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি যুদ্ধে জড়ানোর দায় এড়াতে ন্যাটোর মিত্ররা ইউক্রেনকে তাদের সবচেয়ে উন্নত অস্ত্রগুলো দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে।

মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, বাইডেন প্রশাসন পরবর্তীতে কানাডায় নির্মিত স্ট্রাইকার সাঁজোয়া যান পাঠাবে। তবে মার্কিন ট্যাংক পাঠানোর কোনো পরিকল্পনা আপাতত নেই।

জার্মানিতে নির্মিত লেপার্ড ও পুমা ট্যাংক। ফাইল ছবি: রয়টার্স
জার্মানিতে নির্মিত লেপার্ড ও পুমা ট্যাংক। ফাইল ছবি: রয়টার্স

বৃহস্পতিবার জার্মানির নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্তোরিয়াসের সঙ্গে বার্লিনে মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লয়েড অস্টিনের বৈঠক হবে।

শুক্রবারে অনুষ্ঠিতব্য বৈঠকের মূল আলোচ্য বিষয় হবে ইউক্রেনে ট্যাংক পাঠানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া।

ইতোমধ্যে যুক্তরাজ্য প্রথম পশ্চিমা দেশ হিসেবে ইউক্রেনে চ্যালেঞ্জার ট্যাংক পাঠানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ফলে জার্মানির ওপর এ বিষয়ে চাপ বেড়েছে। পোল্যান্ড ও ফিনল্যান্ড জানিয়েছে, জার্মানি অনুমোদন দিলে তারা কিয়েভে জার্মানিতে নির্মিত লেপার্ড ট্যাংক পাঠাবে।

জার্মানির লেপার্ড টু ট্যাংক পশ্চিমের সবচেয়ে সেরা ট্যাংকগুলোর অন্যতম। এর ওজন ৬০ হাজার কেজির বেশি এবং এতে ১২০ মিলিমিটারের স্মুথবোর বন্দুক আছে, যার মাধ্যমে ৫ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করা যায়।

ইউক্রেন এখন পর্যন্ত সোভিয়েত আমলের টি-৭২ ট্যাংক ব্যবহার করে এসেছে। তারা জানিয়েছে, লেপার্ড ট্যাংক পেলে সেটি রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে তাদের সক্ষমতা অনেক বাড়াবে।

Comments

The Daily Star  | English

Quota protest updates: BGB deployed in Dhaka, three other districts

Border Guard Battalion was deployed in Dhaka, Chattogram, Rajshahi and Bogura to maintain law and order

5h ago