ক্রিকেট
এশিয়া কাপ ২০২৩

শান্তর আক্ষেপ নেই, আক্ষেপ আছে

বাঁহাতি শান্ত তিনে নেমে খেলেন ৮৯ রানের ঝলমলে ইনিংস।
ছবি: এএফপি

বাংলাদেশের হতশ্রী ব্যাটিংয়ের মাঝে আলাদা থাকলেন কেবল নাজমুল হোসেন শান্ত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাজেভাবে হেরে এশিয়া কাপের সুপার ফোরে ওঠা শঙ্কায় পড়ে যাওয়ার ম্যাচে অল্পের জন্য সেঞ্চুরি পেলেন না তিনি। সেটা নিয়ে আক্ষেপ না করলেও তার আক্ষেপ রইল পুরো ওভার খেলতে ব্যর্থ হওয়া নিয়ে।

গতকাল বৃহস্পতিবার পাল্লেকেলেতে আসরের 'বি' গ্রুপের ম্যাচে ৫ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। টস জিতে আগে ব্যাট করে মাত্র ১৬৪ রানে গুটিয়ে যায় তারা। তখনও বাকি ছিল ইনিংসের ৪২ বল। এরপর বোলাররা লড়াই চালালেও সহজ লক্ষ্য তাড়ায় স্বাগতিকরা জয় তুলে নেয় ১১ ওভার বাকি থাকতে।

বাংলাদেশের মাত্র চার ব্যাটার পৌঁছান দুই অঙ্কে। বাঁহাতি শান্ত তিনে নেমে খেলেন ৮৯ রানের ঝলমলে ইনিংস। ৪২তম ওভারে অষ্টম খেলোয়াড় হিসেবে সাজঘরে ফেরেন তিনি। এর আগে ১২২ বল মোকাবিলায় তিনি মারেন সাতটি চার।

দিবারাত্রির ম্যাচে পাল্লেকেলের উইকেটে প্রথম ব্যাট করা দলের রানের গড় ২৮০ থেকে বেশি। তবে ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে শান্ত জানান, এদিন উইকেট তেমন ছিল না, 'ব্যাটিং শুরুর আগে আমরা ২৫০-২৬০ রানের মতো করতে চেয়েছিলাম। তবে নতুন বলে ব্যাটিং করা সহজ হলেও আমি মনে করি, পরে কঠিন হয়ে পড়ে। তো এটা অতটা সহজ উইকেট ছিল না।'

উইকেট পূর্ণ সহায়তা না করলেও ব্যাটারদের পারফরম্যান্সকে কাঠগড়ায় তোলেন তিনি, 'আমাদের উইকেট দেখে মনে হয়েছিল (আগে) ব্যাটিং করা উচিত। আমাদের অধিনায়ক ও কোচ যে সিদ্ধান্তটা নিয়েছে তাতে আমরা সবাই একমত ছিলাম। আমরা ভালো ব্যাটিং করিনি। উইকেট আমি বলব না যে অনেক সহজ ছিল। তবে আমরা আরও ভালো ব্যাটিং করতে পারতাম।'

গত মে মাসে আয়ারল্যান্ড সফরে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নেন শান্ত। এবার বেশ কাছে গিয়ে বঞ্চিত হন এই টপ অর্ডার ব্যাটার। তবে তিনি আফসোস জানান ইনিংসের শেষ পর্যন্ত না টিকতে পারায়, '(সেঞ্চুরি না পাওয়ায়) আক্ষেপ নেই। তবে একটা আক্ষেপ আছে, যদি আমি পুরো ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে পারতাম। এটা করতে পারলে ভালো লাগত।'

Comments