ক্রিকেট

বাঁচা-মরার লড়াইয়ে বাংলাদেশ দলে আসতে পারে পরিবর্তন

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের একাদশে পরিবর্তনের আভাস দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের কোচ চন্ডিকা হাতুরুসিংহে।
বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান এশিয়া কাপ
ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কার কাছে হারের পর এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে পড়ার শঙ্কায় রয়েছে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় ছাড়া কোনো বিকল্প নেই তাদের। এমন ম্যাচে টাইগারদের একাদশে বেশ কিছু পরিবর্তন আসতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের কোচ চন্ডিকা হাতুরুসিংহে।

চোট ও অসুস্থতার কারণে বাংলাদেশ দলের নিয়মিত দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস নেই স্কোয়াডে। তাদের জায়গায় লঙ্কানদের বিপক্ষে মোহাম্মদ নাঈম শেখ ও তরুণ তানজিদ হাসানের উপর ভরসা রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু দুইজনই ব্যর্থ হয়েছেন সেই ম্যাচে। অভিষিক্ত তানজিদ রানের খাতাই খুলতে পারেননি। আর নাঈম শেখ ১৬ রান করে থামেন।

তবে আফগানদের বিপক্ষেও তাদের উপর আস্থা রাখার কথা বলেন কোচ হাতুরুসিংহে, 'টপ অর্ডারে দুজন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান হারানো অবশ্যই বড় চ্যালেঞ্জ। সেটা যেকোনো দলের জন্যই সত্যি। কিন্তু কিছু করার নেই। একজন চোটের সঙ্গে লড়ছে। আরেকজন অসুস্থ। আমাদের দলে এখন যারা আছে, তাদের ওপর ভরসা রাখতে হবে। ওরা প্রতিভাবান, সে জন্যই ওরা দলে আছে।'

এদিকে প্রাথমিক দলে না থাকলেও লিটন দাসের অসুস্থতায় হুট করেই এশিয়া কাপের স্কোয়াডে নেওয়া হয় এনামুল হক বিজয়কে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে না খেলালেও ধারণা করা হচ্ছে আফগানদের বিপক্ষে নেওয়া হতে পারে তাকে। সেক্ষেত্রে বাদ পড়তে পারেন নাঈম শেখ বা তানজিদের মধ্যে যে কোনো একজনকে।

এছাড়া সাত নম্বরের জন্য বিবেচনা করা হতে পারে আফিফ হোসেনকে। এমনটা হলে শেখ মেহেদী হাসান কিংবা মেহেদী হাসান মিরাজের মধ্যে কেউ একজন বাদ পড়তে পারেন। এছাড়া হাঁটুর চোট থাকা সত্ত্বেও লঙ্কানদের বিপক্ষে খেলা মোস্তাফিজুর রহমান বসিয়ে হাসান মাহমুদকে খেলানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে সবকিছুই ঠিকঠাক হবে উইকেট দেখে। লাহোরের উইকেট অবশ্য সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাটারদের পক্ষেই কথা বলছে। সে উইকেট বিবেচনা করে দল নির্বাচন করবেন বলে জানান কোচ হাতুরুসিংহে, 'আমরা মাত্রই এলাম। এখনো উইকেট দেখিনি। যদি উইকেট ভিন্ন হয়, তাহলে অবশ্যই আমরা ভিন্ন সমন্বয় নিয়ে ভাবব।'

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: মোহাম্মদ নাঈম শেখ, তানজিদ হাসান তামিম/এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাওহিদ হৃদয়, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মেহেদী হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদী হাসান/আফিফ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান/হাসান মাহমুদ ও শরিফুল ইসলাম।

Comments