উইকেট পেয়ে ছেলের জন্য রোনালদোর উদযাপন করেন তাহির

মঙ্গলবার রাতে রানে ভরা উইকেটে সাকিব আল হাসান ও শেখ মেহেদী হাসানের ঝড়ে ২১৯ রানের বিশাল পুঁজি পায় রংপুর রাইডার্স।  জবাবে তাহিরের তোপে পড়ে খুলনা গুটিয়ে যায় ১৪১ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকান লেগ স্পিনার ৪ ওভার বল করে ২৬ রানে পান ৫ উইকেট।
Imran Tahir
রোনালদোর বিখ্যাত উদযাপন করছেন ইমরান তাহির ও রিপন মন্ডল। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

উইকেট পেয়েই ভোঁ দৌড় শুরু করেন ইমরান তাহির, অনেকখানি ছোটে গিয়ে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ট্রেডমার্ক 'সিউ' উদযাপন করতে দেখা যায় তাকে। মঙ্গলবার চট্টগ্রামে খুলনা টাইগার্সকে ধসিয়ে পাঁচবার এই উদযাপন করেছেন তিনি। পরে ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন রোনালদো ভক্ত পুত্রকে খুশি করতেই এমন উদযাপন করেন তিনি।

মঙ্গলবার রাতে রানে ভরা উইকেটে সাকিব আল হাসান ও শেখ মেহেদী হাসানের ঝড়ে ২১৯ রানের বিশাল পুঁজি পায় রংপুর রাইডার্স।  জবাবে তাহিরের তোপে পড়ে খুলনা গুটিয়ে যায় ১৪১ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকান লেগ স্পিনার ৪ ওভার বল করে ২৬ রানে পান ৫ উইকেট। এর আগে ঢাকায় নিজের বিপিএল অভিষেকেও দুই উইকেট নিয়ে রাঙান ৪৪ পেরুনো লেগ স্পিনার।

প্রতিবারই উইকেট পেয়ে একই রকম উদযাপন করতে দেখা যায় তাকে। ম্যাচ সেরা হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে জানান নিজের ছেলের জন্য রোনালদোর সিউ বেছে নিয়েছেন তিনি,  'খেলার প্রতি তীব্র প্যাশন থেকে এটা আসে (উদযাপন)। রোনালদোর উদযাপনটা করি আমার ছেলের জন্য। সে চায় আমি প্রতিবার তা করি। সে রোনালদোর বিশাল ভক্ত। একদিন মিস করেছিলাম, সে খুশি হয়নি। আমি তাই সব সময় তাকে খুশি করতে চাই।'

তাহির গত রাতে রোনালদোর উদযাপনে সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন রিপন মন্ডলকে। রংপুরের এই পেসারও রোনালদোর ভক্ত। এবার বিপিএলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের শহিদুল ইসলামকেও উইকেট পেয়ে রোনালদোর উদযাপন করতে দেখা যাচ্ছে। 

তাহিরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিলো ৩০ পেরুনোর পর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়লেও স্বীকৃতি ক্রিকেট  লম্বা করে চলেছেন তিনি। আর কদিন পর ৪৫ বছরে পড়বেন তাহির। তবে এখনো ছুটছেন দারুণভাবে। ভাঙা আঙুল নিয়ে খেলে যাওয়ার কথা বলা এই লেগ স্পিনার ৫০ বছর পর্যন্ত খেলে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে চান,   'বয়স কোন বাধা নয়। বলা উচিত না, দেখুন আমি ভাঙা আঙুল নিয়ে খেলি। এটা প্রমাণ করে  কতটা খেলাটা ভালোবাসি আমি। আমি যখন ছোট ছিলাম বা ২০ বছর বয়েসেও সুযোগ পাইনি। ৩২ বছরে পেয়েছি। আমি দক্ষিণ আফ্রিকাকে প্রতিনিধিত্ব করেছি, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। এটা আমার স্বপ্ন ছিলো, স্বপ্নের মধ্যেই বাস করি। আমি শুধু মজা করতে আসি না। চেষ্টা করলাম স্রেফ এমন নয়, চেষ্টার চেয়েও বেশি কিছু করতে চাই। আমার কাছে ৪৫, ৪৭-৪৮ কোন বিষয় না। যতদিন আমি ভালোভাবে ছুটতে পারি, দলের চাহিদা মেটাতে পারি খেলব। আমি খেলাটা উপভোগ করছি। কে জানে আমি হয়ত ৫০ বছর পর্যন্ত খেলে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে পারব।'

Comments