‘মহারাজের ওভারের চেয়ে বেশি বাজে ছিল বাংলাদেশের ব্যাটিং’

২ বলে ৬ রানের চাহিদা থাকা অবস্থায় লো ফুল টসে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে সীমানার ঠিক ভেতরে মার্করামের তালুবন্দি হয়ে আউট হয়ে যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাকি দুটি ফুল টসের সদ্ব্যবহার করতে ব্যর্থ হন জাকের আলি অনিক ও তাসকিন আহমেদ।
ছবি: এএফপি

একটি-দুটি নয়, তিন-তিনটি ফুল টস দিলেন কেশব মহারাজ। কিন্তু কোনোটিরই ফায়দা তুলতে পারলেন না ব্যাটাররা। সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জিততে জিততে পথ হারিয়ে ফেলল বাংলাদেশ। ম্যাচের পর ভারতের ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকার বললেন, শেষ ওভারে মহারাজের বোলিংয়ের চেয়ে বাংলাদেশের ব্যাটিং ছিল অনেক বেশি বাজে।

বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের 'ডি' গ্রুপের ম্যাচটি ছিল কম রানের রোমাঞ্চকর লড়াই। সেখানে লম্বা সময় চালকের আসনে থেকেও ৪ রানে হেরে হৃদয় ভেঙেছে নাজমুল হোসেন শান্তর দলের। গতকাল সোমবার নিউইয়র্কে টস জিতে প্রোটিয়াদের করা ৬ উইকেটে ১১৩ রানের জবাবে তারা থামে ৭ উইকেটে ১০৯ রানে।

ম্যাচশেষে ভারতীয় গণমাধ্যম স্টার স্পোর্টসের একটি আয়োজনে সাবেক ক্রিকেটার মাঞ্জরেকার বাংলাদেশের ব্যাটিংকে কাঠগড়ায় তুলেছেন, 'মহারাজের করা ওভারটি ছিল বাজে। দক্ষিণ আফ্রিকার ভাগ্য ভালো (বাংলাদেশের) ব্যাটিং ছিল আরও বেশি বাজে।'

শেষদিকে বাংলাদেশের পা হড়কানোর শুরুটা হয় তাওহিদ হৃদয়ের আম্পায়ার্স কলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়া দিয়ে। এরপর ১৮ বলে ২০ রানের সমীকরণ ভীষণ কঠিন হয়ে প্রয়োজন দাঁড়ায় ৬ বলে ১১ রানের। সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ ওই ওভার করতে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এইডেন মার্করাম বল তুলে দেন মহারাজের হাতে। এই বাঁহাতি স্পিনার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৩০ ম্যাচের ক্যারিয়ারে প্রথমবার শেষ ওভারে আক্রমণে গিয়েই হন জয়ের নায়ক। মাত্র ৬ রান খরচায় তুলে নেন ২ উইকেট। সব মিলিয়ে ২৭ রানে তার শিকার ৩ উইকেট।

মাঞ্জরেকারের মতে, সেসময় ভীষণ চাপে ছিলেন মহারাজ, 'আমরা সবাই এটা নিয়ে কথা বলছি যে, এই পিচ বোলারদের জন্য ভীষণ সহায়ক। এর (শেষ ওভারের) আগ পর্যন্ত মহারাজ পিচকে পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে ব্যাটারদের জন্য (খেলাটা) কঠিন করে তুলেছিলেন। কিন্তু শেষ ওভারে তিনি পিচকে কাজে লাগাতে অনিচ্ছুক ছিলেন এবং ইয়র্কার লেংথের আশেপাশে বল করতে শুরু করেন, যেখানে প্রথম বলটা ছিল ওয়াইড। তো অবশ্যই তিনি চাপটা অনুভব করছিলেন।'

অথচ ভিন্ন চিত্রের দেখা মিলতে পারত নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে। স্নায়ুচাপে ভুগে মহারাজ দেন তিনটি ফুল টস ডেলিভারি। কিন্তু তার সৌভাগ্য হোক বা বাংলাদেশের দুর্ভাগ্য— কোনোটিই যায়নি সীমানার বাইরে। বরং ২ বলে ৬ রানের চাহিদা থাকা অবস্থায় লো ফুল টসে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে সীমানার ঠিক ভেতরে মার্করামের তালুবন্দি হয়ে আউট হয়ে যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাকি দুটি ফুল টসের সদ্ব্যবহার করতে ব্যর্থ হন জাকের আলি অনিক ও তাসকিন আহমেদ।

রোমাঞ্চকর জয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তিন ম্যাচে তাদের অর্জন পূর্ণ ৬ পয়েন্ট। আগের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাটকীয় জয় পাওয়া বাংলাদেশের অর্জন দুই ম্যাচে ২ পয়েন্ট।

Comments

The Daily Star  | English

More rains threaten to worsen situation

More than one million marooned; BMW predict more heavy rainfall in 72 hours; water slightly recedes in main rivers

58m ago