বেশিরভাগ সম্পদ দান করবেন জেফ বেজোস

বিশ্বের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস সম্প্রতি জানিয়েছেন, তিনি তার ১২৪ বিলিয়ন ডলার মূল্যের সম্পদের বেশিরভাগ অংশই দাতব্য প্রতিষ্ঠানকে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন। 
অ্যামাজনের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট জেফ বেজোস। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস সম্প্রতি জানিয়েছেন, তিনি তার ১২৪ বিলিয়ন ডলার মূল্যের সম্পদের বেশিরভাগ অংশই দাতব্য প্রতিষ্ঠানকে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন। 

সিএনএন-এর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে বেজোস বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন এবং রাজনৈতিক বিভাজনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য তার সম্পত্তি দান করার পাশাপাশি সামাজিক বিপর্যয়ে পড়া অভাবী মানুষদের সাহায্যের জন্যও চেষ্টা করবেন তিনি।

সিএনএন জানিয়েছে, এই প্রথম বেজোস প্রকাশ্যে তার বেশিরভাগ অর্থ দানের ঘোষণা দিয়েছেন। 

দ্য গিভিং প্লেজ-এ স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করে সম্প্রতিকালে ব্যাপক সমালোচনার শিকার হয়েছিলেন বর্তমান বিশ্বের চতুর্থ সম্পদশালী বেজোস। দ্য গিভিং প্লেজ এমন একটি প্রচারাভিযান যেটি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের দান করা অর্থে মানবিক কাজ পরিচালিত হয়।

সিএনএনের সাক্ষাৎকারে বেজোস এবং তার অংশীদার লরেন সানচেজ বলেছেন, বর্তমানে তারা বেজোসের বেশিরভাগ সম্পত্তি দান করার বিষয়ে একটি সম্ভাব্য এবং কার্যকর উপায় খুঁজছেন।

তবে কী পরিমাণ সম্পত্তি দান করা হবে জানতে চাওয়া হলে বেজোস তার পরিমাণ নির্দিষ্ট করে বলতে অস্বীকার করেন।

তবে বেজোস তার আর্থ ফান্ডে ১০ বিলিয়ন ডলার দান করেছেন বলে জানা গেছে। যার লক্ষ্য হলো কার্বন হ্রাস করা এবং কার্বন নিঃসরণ পর্যবেক্ষণে গবেষণার মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই করা। 

প্যারিস জলবায়ু চুক্তি অনুসারে, অ্যামাজন একইভাবে ২০৪০ সালের মধ্যে তার কার্বন হ্রাসে সম্মত হয়েছে।

বেজোস বর্তমানে অ্যামাজনের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট, গতবছর তিনি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) পদ ছেড়ে দেন। 

Comments

The Daily Star  | English
mental health of students

Troubled: Mental health challenges of our school children

Unfortunately, a child suffering from mental health issues is often told, “get over it” or “it’s all in your head.”

5h ago