শিক্ষা

চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৬ ডিগ্রি, প্রাথমিক-মাধ্যমিক স্কুল বন্ধ

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে অঞ্চলে হঠাৎ ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা কমে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের কারণে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে জেলার সব মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়। 
চুয়াডাঙ্গায় সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের দেখা মিলছে না। ছবি: স্টার

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে অঞ্চলে হঠাৎ ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা কমে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের কারণে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে জেলার সব মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়। 

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের দেখা মিলছে না এ জেলায়। দুপুরে সূর্যের দেখা মিললেও তা উত্তাপ ছড়াচ্ছে না।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিস জানায়, আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায় ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মাঘের তীব্র হাড় কাঁপানো শীতের সঙ্গে উত্তরের হিমেল হাওয়া শীতের তীব্রতা বাড়িয়ে দিচ্ছে কয়েক গুণ। এই শীতে বিপর্যস্ত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে রয়েছেন খেটে খাওয়া ছিন্নমূল মানুষ। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতে দেখা গেছে এসব মানুষকে। শীতে সময়মত কাজে যেতে পারছেন না তারা।
 
দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ডের রিকশাচালক সিরাজুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আজ সকাল থেকি যে শীত পড়চি মনে হচ্চি যেনে ডিপ ফিরিজের মদ্দি আচি। শীতে হাত-পা সব অবাস হয়ি যাচ্চি। সকালে রাস্তাঘাটে কম লোকজন বের হচ্চি। এতে আমাদের ভাড়া কমি গিয়িচে।'

মেহেরপুর সদর উপজেলার কাঠালপোতা গ্রামের কৃষক আব্দুল বারী ডেইলি স্টারকে, 'খুব ঠাণ্ডা পড়চি। আমার ধানের পাতু (চারা) পুড়ি নষ্ট হয়ি যাচ্চি। ধান লাগানুর সুমায় পাতু পাব কুতায়? এটা নিয়ি চিন্তা হচ্চি।'
 
চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জামিনুর রহমান ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গত কয়েকদিন চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুর অঞ্চলে ৯ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে তাপমাত্রা উঠানামা করছিল। আজ তা ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিয়েছে। আজ চুয়াডাঙ্গার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। এটি এ মৌসুমের চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর অঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও।'

Comments