৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন রাঙামাটির সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনুর মেয়ে নাজনীন আনোয়ার।
(উপরে বাঁ থেকে) দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম ও পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকম সম্পাদক ফজলে এলাহী, জাগো নিউজের রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি সাইফুল হাসান, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিক অনির্বাণ শাহরিয়ার। দীপ্ত টিভির বিশেষ প্রতিনিধি বায়েজিদ আহমেদ, টিবিএসের খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি দিদারুল আলম ও বণিক বার্তার প্রতিনিধি প্রান্ত রনি। ছবি: সংগৃহীত

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন রাঙামাটির সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনুর মেয়ে নাজনীন আনোয়ার।

গত বুধবার চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করেন তিনি। আসামিদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে আক্রমণাত্বক, মানহানিকর ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের প্রতিবেদক অনির্বাণ শাহরিয়ার, রাঙ্গামাটির দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম ও পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকম সম্পাদক ফজলে এলাহী, জাগো নিউজের রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি সাইফুল হাসান, দীপ্ত টিভির বিশেষ প্রতিনিধি বায়েজিদ আহমেদ, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডের খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি দিদারুল আলম ও বণিক বার্তার রাঙামাটি প্রতিনিধি প্রান্ত রনি। মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবির মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) আগামী ১৩ নভেম্বরে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আসামিরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করার কারণে বাদী ও তার মা সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হয়রানির শিকার হয়েছেন। এই অভিযোগ নিয়ে তারা থানায় অভিযোগ করতে গেলেও কালক্ষেপণ করে মামলা নিতে অস্বীকার করা হয়। এ কারণে আদালতে মামলা করা হলো।

মামলায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮-এর ২৩, ২৫, ২৬, ২৯, ৩১, ৩৪, ৩৫ ও ৩৭ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

এইদিকে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় তিন পার্বত্য জেলার সাংবাদিক নেতারা নিন্দা জানিয়েছেন। রাঙ্গামাটি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সৈকত বাবু ও সাধারণ সম্পাদক মিশু দে এক বিবৃতিতে এই মামলাকে 'হয়রানিমূলক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত' দাবি করে অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

বান্দরবান প্রেস ইউনিটের সভাপতি আলাউদ্দীন শাহরিয়ার, বান্দরবান রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি মংসানু মারমা, বান্দরবান সাংবাদিক ইউনিয়নের আহ্বায়ক আল ফয়সাল বিকাশ পৃথক বিবৃতিতে মামলার ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি জিতেন বড়ুয়া ও সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের মোহাম্মদ এক বিবৃতিতে, ছয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তারা, অবিলম্বে সাংবাদিক হয়রানি বন্ধের দাবি জানান।

Comments

The Daily Star  | English

EC gets transfer list of 110 UNOs, 338 OCs

Lists of 110 more UNOs and 338 OCs of different police stations were sent to the Election Commission by the authorities concerned today for transfer ahead of the January 7 national polls

51m ago