চার কারণে হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল

হিরো আলম বলছেন, এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করবেন তিনি।

বগুড়া-৪ আসনে আলোচিত কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল করেছেন রিটানিং কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম। মনোনয়নপত্র যথাযতভাবে পূরণ না করার কারণে তা বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আজ রোববার দুপুরে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর এই ঘোষণা দেওয়া হয়।  

তবে হিরো আলম বলেছেন, এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করবেন তিনি।

হিরো আলমের মনোনয়ন বাতিল
বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে হিরো আলম। ছবি: স্টার

হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিলের কারণ সম্পর্কে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বগুড়ার জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম বলেন, হিরো আলম যে হলফনামা জমা দিয়েছেন সেখানে তার সাক্ষর নেই। সম্পদ বিবরণীর ফর্মও এতে যুক্ত করা হয়নি। এছাড়া হিরো আলম দলীয় মনোনয়ন নিলেও পূরণ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীর ঘর। আর ১ শতাংশ ভোটারের সাক্ষরও জমা দেননি তিনি।  

এ বিষয়ে হিরো আলম সাংবাদিকদের বলেন, 'হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল নতুন কোন বিষয় নয়। আমি আপিল করে আবার ভোটের মাঠে ফিরে আসব।'

মনোনয়নপত্রে ভুলের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'মানুষ মাত্রই ভুল হয়। এবার আমার উকিল দুটি ছোট ভুল করেছেন।'

হিরো আলম এবার বাংলাদেশ কংগ্রেস জোটের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এর আগে চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে নির্বাচন কমিশনে আপিল করে প্রার্থিতা ফেরত না পেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন তিনি।

পরে হাইকোর্টের আদেশে নির্বাচনে ফিরে আসেন হিরো আলম। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে বগুড়া-৪ আসনে একতারা প্রতীকে ৮৩৪ ভোট কম পেয়ে আওয়ামী লীগ–সমর্থিত জাসদের প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিমের কাছে হারেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Loan default now part of business model

Defaulting on loans is progressively becoming part of the business model to stay competitive, said Rehman Sobhan, chairman of the Centre for Policy Dialogue.

6h ago