বাংলাদেশ
আশ্রয়ণ

বান্দরবানে পাহাড়ের ভূমিহীনরা পাচ্ছেন মাচাং ঘর

বান্দরবানে ৭টি উপজেলায় পাহাড়ের ভূমিহীনদের ৩০৭টি মাচাং ঘর দেওয়া হবে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে সাত উপজেলার ভূমিহীনরা ঘর পাবেন।
বান্দরবানের ভূমিহীনরা পাচ্ছেন পাহাড়ের পরিবেশ উপযোগী মাচাং ঘর। ছবি: মংসিং হাই/স্টার

বান্দরবানে ৭টি উপজেলায় পাহাড়ের ভূমিহীনদের ৩০৭টি মাচাং ঘর দেওয়া হবে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে সাত উপজেলার ভূমিহীনরা ঘর পাবেন।

আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় তৃতীয় ও চতুর্থ পর্যায়ে তৈরি করা এই ঘরগুলো আগামী ২২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হস্তান্তর করবেন। এর মধ্যে পাহাড়ের পরিবেশের উপযোগী করে তৈরি মাচাং ঘরের পাশাপাশি সমতলের জন্য ১২৩টি সেমি পাকা ঘরও দেওয়া হবে।

ঘর দেওয়া উপলক্ষে আজ সোমবার দুপুরে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সাত উপজেলার মধ্যে বান্দরবান সদরে ৪৫টি, লামায় ৪০টি, আলীকদমে ৭টি, নাইক্ষ্যংছড়িতে ৫০টি, রুমায় ১১৬টি, রোয়াংছড়িতে ১২০টি এবং থানচিতে ৫২টি মিলিয়ে মোট ৪৩০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর দেওয়া হবে। এর মধ্যে সমতলের ডিজাইনে ১২৩টি সেমি পাকা ঘর ও ৩০৭টি মাচাং ঘর।

বান্দরবানের ভূমিহীনরা পাচ্ছেন পাহাড়ের পরিবেশ উপযোগী মাচাং ঘর। ছবি: মংসিং হাই/স্টার

সংবাদ সম্মেলন শেষে জানানো হয়, বান্দরবান পার্বত্য জেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সংখ্যা ৪ হাজার ১৫৯। বিভিন্ন ধাপে এ পর্যন্ত ৩ হাজার ৮৭৭টি ঘর দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ২ হাজার ১৩৪টি, দ্বিতীয় পর্যায়ে ৫৬৪টি এবং তৃতীয় পর্যায়ে ২৭৯টি ঘর হস্তান্তর করা হয়।

Comments