রাজনীতি

নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের ২ পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, আহত ৬ 

নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা চলাকালে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিনের সমর্থক এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
ছবি: স্টার

নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা চলাকালে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিনের সমর্থক এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে জেলা শহর মাইজদীতে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে আবদুল মালেক উকিল সড়কে ওই ঘটনা ঘটে।

এসময় ইটপাটকেলের আঘাতে পথচারী নজরুল ইসলামসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। নজরুল ইসলামকে জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের একটি সূত্র জানায়, সকাল ১১টায় নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সভা কক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা শুরু হয়। জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিমের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ফরিদুন্নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক বাবু সুজিত রায় নন্দি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বর্ধিত সভা উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় নেতারা প্রবেশের আগ থেকেই আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানিয়ে স্লোগান দেয় জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন অনুসারীরা। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে পাল্টা স্লোগান দেয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অনুসারীরা। এসময় ২ গ্রুপের মধ্যে প্রথমে বাকবিতণ্ডা, পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় উভয় গ্রুপের মধ্যে ইটপাটকেল ও পাথর নিক্ষেপের ঘটনাও ঘটে। এতে এক পথচারীর মাথা ফেটে যায়। পরে পুলিশ উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

নোয়াখালী শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাইন উদ্দিন সাজু অভিযোগ করে বলেন, সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী বর্ধিত সভায় যোগদান করতে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে প্রবেশের সময় জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীনের অনুসারীরা বাধা দেন এবং বিভিন্ন প্রকার উস্কানি মূলক শ্লোগান দেন। এসময় তারা জিআই পাইপ ও রেল লাইনের পাথর নিয়ে হামলা করতে উদ্ধত হয়। এসময় একরাম চৌধুরীর লোকজন তাদেরকে প্রতিহত করলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। হামলাকারীরা একরামুল করিম চৌধুরীর ব্যানার ও ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলেন।

এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীনের সঙ্গে কথা বললে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এসব বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগ। একরামুল করিম চৌধুরীর দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশে কেউ বাধা দেয়নি।

ঘটনার প্রত্যক্ষ দর্শী সুধারাম মডেল থানার এক পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সভা চলাকালীন বেলা ১২টার দিকে সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর কর্মী-সমর্থকরা দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। এই ঘটনার পর অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীনের কর্মী-সমর্থকরা মাইক যোগে পাল্টা শ্লোগান দিতে থাকেন। এসময় শাহীনের লোকজন একরাম চৌধুরীর একটি ব্যানার ছিঁড়ে ফেললে ২ পক্ষের মধ্যে মারামারি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।  

সুধারাম মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান পাঠান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনার কয়েক মিনিটের মধ্যে থানা ও ডিবি পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ৩ ডিসেম্বর

আগামী ৩ ডিসেম্বর নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এর আগে ১৫ অক্টোবর থেকে ২২ নভেম্বরের মধ্যে জেলার ৯টি উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন সম্পন্ন করার নির্দেশ প্রদান করা হয়। নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

Comments