রাজনীতি

জামালপুরে আ. লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ২৮, আটক ৬

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৩৪ রাউন্ড গুলি ও ৪ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ
সংঘর্ষে আহত এক বিএনপি কর্মীকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

জামালপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ২৮ জন আহত হয়েছেন।

আজ শনিবার দুপুরে জামালপুর সদর উপজেলার তিতপল্লা ইউনিয়নের কামালখান বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ ও ইউনিয়ন বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি চলাকালে উভয়পক্ষের মধ্যে প্রথমে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে, পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শটগানের গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দৌলতুজ্জামান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের অতর্কিত হামলায় আমিসহ ৬ জন আহত হয়েছি।'

তবে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'তিতপল্লা ইউনিয়নে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির প্রস্তুতিকালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। পরে পুলিশ সেখানে গিয়ে গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এ ঘটনায় বিএনপির ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।'

তিনি আরও বলেন, 'সদর উপজেলার দিগপাইত, ঘোড়াধাপ, বাঁশচড়া এবং মেলান্দহের ঝাউগড়া ইউনিয়নেও বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিতে বাধাপ্রদান ও হামলা করেছে আওয়ামী লীগ।' 

এ বিষয়ে জামালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহনেওয়াজ ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আওয়ামী লীগের সমাবেশে বিএনপি নেতাকর্মীরা হামলা করলে পুলিশ অবস্থান নেয়, পরে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশ ও আওয়ামী লীগের ওপর হামলা করে ও ইট-পাটকেল ছুড়ে, এতে এক পুলিশ সদস্যসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহত হন। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৩৪ রাউন্ড গুলি ও ৪ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়। এ ঘটনায় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।'   

Comments